উত্থান-পতনে প্রস্তুতি সারল জিম্বাবুয়ে

প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

বাংলাদেশের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামার আগে গতকাল থেকে দুদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের মুখোমুখি জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। তবে বিশ্বজয়ী যুবাদের দাপটের মুখে একেবারে বিপর্যন্ত হয়ে পড়ে সফরকারীরা। যদিও মুম্বার ফিফটিতে স্বস্তিতেই দিন শেষ করেছে তারা।

গতকাল বিকেএসপিতে শুরু হওয়া প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনের প্রথম সেশনটি ছিল জিম্বাবুয়েনদের। টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে প্রথম সেশনে বিনা উইকেটে প্রায় ১০০ রান তুলে ফেলে জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশের দাপট শুরু হয় মূলত এরপরেই, দ্বিতীয় সেশনে। এ সময়ে একে একে ৬টি উইকেট তুলে নেয় তরুণদের নিয়ে গড়া বিসিবি একাদশ।

তরুণ শাহাদাত হোসেন একাই তুলে নেন ৩টি উইকেট। অপর তরুণ পেসার শরিফুল ইসলাম তার ঝুলিতে একটি উইকেট ভরলেও বেশ ভুগিয়ে ছাড়েন প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের। যাতে বিনা উইকেটে ১০৫ থেকে ৬ উইকেটে ১৮৩ রান নিয়ে চা বিরতিতে যায় জিম্বাবুয়ে।

বিরতি শেষে তৃতীয় সেশনের শুরুতেই সপ্তম উইকেট হারায় সফরকারীরা। ৮৯ বলে ২টি চার ও ১টি ছয়ে ৩৪ রান করা টিমিসেন মারুমাকে নিজের দ্বিতীয় শিকার বানান আল-আমিন হোসেন। যাতে ২২৬ রানেই সপ্তম উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে।

তবে এরপর মুম্বা ও এনদলোভু মিলে অষ্টম উইকেটে জুটি বেঁধে কাটিয়ে দেন দিনের বাকি সময়। দলকে স্বস্তিতে ফেরানো এ জুটিতে ৬৫ রান তোলেন এই দুজন। যার মধ্যে ফিফটি পূরণ করে ১০৫ বলে ৫৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন চার্ল মুম্বা। আর তার সঙ্গী আইনসেø এনদলোভু অপরাজিত ছিলেন ২৫ রানে।

এদিকে, বাংলাদেশকে যুব বিশ্বকাপ জেতানো পাঁচ ক্রিকেটার খেলছেন প্রস্তুতি ম্যাচে। তাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত বোলিং করার সুযোগ পাওয়া শরিফুল ও শাহাদাত, দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন দুজনই।

পেসার শরিফুল ইসলাম ১৫ ওভার বোলিং করে ৫ মেনেডে ৪৫ রান খরচায় নিয়েছেন ১টি উইকেট। অপরদিকে, স্পিনার শাহাদাত হোসেন ৮ ওভার বোলিং করে দুই মেডেনে মাত্র ১৬ রান খরচায় নিয়েছেন ৩টি উইকেট।

বাকি তিনজনের মধ্যে অবশ্য আকবর আলি উইকেটকিপার, আর পারভেজ হোসেন ইমন ও মাহমুদুল হাসান জয় মূলত ব্যাটসম্যান। তাদের সুযোগ আসবে আগামীকালই। দেখা যাক, সুযোগ পেয়ে কতটা কাজে লাগাতে পারেন এই তিনজন।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর

জিম্বাবুয়ে ২৯১/৭, ওভার ৯০ (কাসুজা ৭০, মুম্বা ৫৪*, মাসভাউর ৪৫, মারুমা ৩৪, এনডলোভু ২৫*, মুজিঙ্গানিয়ামা ১৭, আরভিন ১০, চাকাভা ১৩; মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ ১১-৩-৩৯-০, শরিফুল ইসলাম ৪৫/০১, সুমন খান ২৯/০, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ৭৭/০, আল-আমিন ৪০/২, রিশাদ হোসেন ২৬/০, শাহাদাত হোসেন ১৬/৩)।

 

"