সরকারের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় বিসিবি

‘কাউকে জোর করে পাকিস্তান পাঠানো হবে না’

প্রকাশ : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

জানুয়ারিতে বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফরের বিষয়টি ঝুলে আছে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলের প্রতিবেদনের ওপর। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানালেন, চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যেই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে। তবে সফর নিশ্চিত হলেও পাকিস্তান যেতে ক্রিকেটারদের ওপর কোনোরকম জোর খাটাবে না বোর্ড।

কিছুদিন আগে পাকিস্তান সফর করে এসেছে বাংলাদেশ নারী দল। ছেলেদের অনূর্ধ্ব-১৬ দলও গিয়েছিল সেখানে। গেল দুটি সিরিজে নিরাপত্তা ছাড়পত্র পাওয়ায় তামিম-মুশফিকদের সফর নিয়েও সম্ভাবনা দেখছেন বিসিবি সভাপতি, ‘আমরা নিরাপত্তাজনিত ব্যাপারে সরকারের কাছে আবেদন করেছিলাম, নিরাপত্তা ছাড়পত্র পাব কি না। এর আগে মেয়েদের টিম গিয়েছে, বয়সভিত্তিক দল গিয়েছে। ওরা খেলে এসেছে। জাতীয় দলের ছাড়পত্র এখনো আমরা পাইনি। যদি নিরাপত্তার ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করেন সেটা অনূর্ধ্ব-১২ হোক, জাতীয় দল হোক নিরাপত্তা নিরাপত্তাই। সবার জন্য একই হওয়ার কথা। তাই আমরা ধরে নিচ্ছি সম্ভাবনা রয়েছে আমরা নিরাপত্তা ছাড়পত্র পেয়ে যাব। তারপরও যেহেতু আমরা কাগজটা হাতে পাইনি। তারা (বাংলাদেশের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দল) গেছেন, দেখেছেন। সেক্ষেত্রে আমরা আমরা আশা করছি, যেকোনো দিন পেয়ে যাব। পাওয়ার পর বলতে পারব আমরাদের সিদ্ধান্তটা কী। কারণ এখানে একটা বিষয় হচ্ছে নিরাপত্তা ছাড়পত্র।’

কোনো খেলোয়াড় যদি যেতে না চান তাহলে কী করবে বিসিবি? জবাবে নাজমুল হাসান বলেন, ‘কেউ যদি যেতে না চায় যাবে না। এখানে তো জোর করার কিছু নেই। বোর্ড থেকে কাউকে জোর করে পাঠানো হবে না। এখন পর্যন্ত আমাকে যদি জিজ্ঞাসা করেন আমার ভাবনা; কাউকে জোর করে পাঠানোর কোনো প্রশ্নই উঠে না। বিকল্প টিম যাবে নাকি তারাই যাবে সেটি পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে।’

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা টিম বাসে সন্ত্রাসী হামলার পর প্রায় ১০ বছর পাকিস্তান সফর থেকে দূরে থাকে ক্রিকেট দলগুলো। সম্প্রতি সেদেশে সফর করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কা। দুমাস আগেই সেখানে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে লঙ্কানরা। চলছে সিরিজের প্রথম টেস্ট।

গত বছর নিউজিল্যান্ড সফরের সময় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তারপর থেকে টাইগারদের বিদেশ সফরের ব্যাপারে সতর্ক বিসিবি। ফিউচার ট্যুর প্ল্যানে (এফটিপি) জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানকে স্বাগতিক করে দুটি টেস্ট ও তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ রেখেছে আইসিসি।

 

"