বাংলাদেশের বিপক্ষে থাকছেন না কোহলি!

প্রকাশ : ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আসন্ন ভারত সফর নিয়ে এরই মধ্যে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে উত্তেজনার পারদ চড়তে শুরু করেছে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সিংহাসনে সৌরভ গাঙ্গুলীর রাজ্যাভিষেকের পর এটাই হতে চলেছে ভারতের প্রথম হোম সিরিজ। অথচ সেই সিরিজেই হয়তো দেখা যাবে না বিরাট কোহলিকে! শোনা যাচ্ছে, টাইগারদের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে ভারতের সর্বাধিনায়ককে। তরুণদের জায়গা করে দিতেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে বিসিসিআই।

গত এক বছরেও বেশ কয়েকটি সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল কোহলিকে। যেমনÑ ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ কিংবা নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে সিরিজের আংশিক খেলেননি তিনি। এবারও হয়তো তাকে ছাড়াই দল গোছাবেন ভারতীয় নির্বাচকরা। দল বাছাইয়ের আগে নাকি নির্বাচন কমিটির মধ্যে এমনই কথা হয়েছে।

জানা গেছে, আগামী বছর টিম ইন্ডিয়ার ব্যস্ত সূচির কথা মাথায় রেখেই নাকি এমন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন নির্বাচকরা। সে ক্ষেত্রে ফের রোহিত শর্মার ভাগ্যেই নেতৃত্বের শিকে ছিড়তে পারে। অধিনায়ক হিসেবে যার ক্যারিয়ার গ্রাফ বেশ সমৃদ্ধ। এশিয়া কাপ, নিদাহাস ট্রফির পাশাপাশি গত বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের সাফল্য রয়েছে রোহিতের ঝুলিতে। তাই ঘরের মাঠে সাকিব-তামিমদের বিপক্ষেও রোহিতের থেকে প্রত্যাশাও থাকবে অনেকখানি। এ ছাড়াও দলে শিভম দুবে, শুভমান গিল, কৃষ্ণাপ্পা গৌতম এবং সঞ্জু স্যামসনের মতো প্রতিভাবান তরুণদের সুযোগ দেওয়া হতে পারে।

ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার চলমান রাঁচি টেস্ট শেষ হলেই আগামী ৩ নভেম্বর শুরু হয়ে যাবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে লড়াই। প্রথম টি-টোয়েন্টি কোহলির ঘর দিল্লিতে। পরের দুটি রাজকোট ও নাগপুরে। ২০ ওভারের সিরিজ শেষে দুটি টেস্টও খেলবে টাইগাররা। সাদা পোশাকের এই সিরিজ দিয়েই আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে অভিষেক হবে বাংলাদেশের। লাল বলের ক্রিকেটে অবশ্য ভারতকে নেতৃত্ব দেবেন বিরাট কোহালিই। ইন্দোরে প্রথম টেস্টের পর আগামী ২২ নভেম্বর কলকাতার ঐতিহাসিক ইডেন গার্ডেন্সে মুখোমুখি হবে দুই দল। এই প্রথম বাংলাদেশ ক্রিকেটের নন্দনকাননে কোনো টেস্ট খেলতে যাচ্ছে। সেই ম্যাচ দেখার জন্য দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বিসিসিআই বস সৌরভ। সব ঠিকঠাক থাকলে ইডেনেই দেখা হতে পারে হাসিনা-মোদির।

"