লেভানডফস্কির হ্যাটট্রিক

বেলজিয়ামের গোলের ‘হাইলাইটস’

প্রকাশ | ১২ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ইউরোপের দুর্ভাগা একটা দল স্যান মারিনো। জায়ান্ট কোনো দলের সামনে পড়লেই নাজুক অবস্থা হয়ে যায় তাদের। বড় দলের সঙ্গে খেলা মানেই তাদের রক্ষণভাগের ওপর দিয়ে ঝড় বয়ে যাওয়া। এই যেমন পরশু তাদের গোলের মালা পড়াল বেলজিয়াম। দুই মেরুর দুই দলের খেলা দেখলে যে কেউই বিভ্রান্ত হতে পারেন। গোলের হাইলাইটস দেখছি না তো!

না, গোলের হাইলাইটস নয়। পুরো দেড় ঘণ্টার একটা ম্যাচই হয়েছে। ইউরো বাছাইপর্বের এই ম্যাচে স্যান মারিনোকে ৯-০ গোলবানে ভাসিয়ে দিয়েছে বেলজিয়ানরা। ইউরোপের ‘কালো ঘোড়া’দের গোল উৎসবের রাতে জয় পেয়েছে ফেভারিট ক্রোয়েশিয়া, পোল্যান্ড ও রাশিয়া।

তবে হোঁচট খেয়েছে গ্যারেথ বেলের ওয়েলস। সেøাভাকিয়ার মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছে তারা।

ব্যক্তিগতভাবে শুক্রবারের রাতটা ছিল শুধুই রবার্ট লেভানডফস্কির। বায়ার্ন মিউনিখ স্ট্রাইকারের হ্যাটট্রিকে লাটভিয়াকে তাদেরই মাঠে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে পোল্যান্ড। ম্যাচের ১৩ মিনিটের মধ্যে জোড়া গোল করা লেভা হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন ৭৬ মিনিটে। ইউরো বাছাইপর্বে প্রতি ৫৫ মিনিটে গড়ে একটি করে গোল করার রেকর্ড হলো তার।

ঘরের মাঠে স্যান মারিনোকে বেলজিয়াম যেভাবে ফুটবল শিখিয়েছে, সেটার বিশেষণ এক কথায় অভাবনীয়। অথচ প্রথম গোলের জন্য কী কাঠখড়ই না পোড়াতে হয়েছে ইডেন হ্যাজার্ড-রোমেলু লুকাকুদের! অপেক্ষা করতে হয়েছে ‘দীর্ঘ’ সময়। বেলজিয়ামকে ২৭ মিনিট পর্যন্ত গোলখরায় রেখেছিল স্যান মারিনো। এরপরই গুঁড়িয়ে যায় অতিথিদের বাধার প্রাচীর। প্রতিরোধ ভাঙেন লুকাকু; খোলেন গোলমুখ, ঠাঁই করে নেন ইতিহাসের পাতায়। লুকাকুর এই গোলটা যে দেশের জার্সিতে প্রথম বেলজিয়ান হিসেবে ৫০তম!

গোলবন্যার শুরুটায় তাই উদ্যাপনের মাত্রাটা একটু বেশিই ছিল, যার শেষটা হয়েছে ৯০ মিনিটে। প্রথমার্ধে ৬ গোল করা বেলজিয়াম বিরতির পর স্যান মারিনোর জাল কাঁপিয়েছে আরো তিনবার। মাইলফলক ছোঁয়া গোলের পর স্কোরশিটে আরেকবার উঠেছে লুকাকুর নাম। পাঁচজন করেছেন একটি করে গোল। বাকি দুই গোল এসেছে ‘উপহারসূচক’ আত্মঘাতী গোলে। অসম এই লড়াইয়ে ৮৪ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রেখে খেলেছে বেলজিয়াম। স্বাগতিকদের একচ্ছত্র আধিপত্যও ম্যাচের আরেক বিস্ময়।

 

"