ব্রাজিলে দীর্ঘমেয়াদি সুযোগ চায় বাংলাদেশ

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে চার তরুণ ফুটবলারকে নিজ দেশে প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছিল ব্রাজিল। মাসব্যাপী এই কার্যক্রমের সফলতায় সন্তুষ্ট হয়ে এবার আরো বড় প্রকল্প হাতে নিতে চায় বাংলাদেশের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য এবার দীর্ঘমেয়াদে ব্রাজিলে বয়সভিত্তিক পর্যায়ের ফুটবলার পাঠাতে চায় বাংলাদেশ। ব্রাজিলের ১৯৭তম স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে সোমবার রাতে রাজধানীর গুলশানের একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। সেখানেই বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূতকে নিজের ইচ্ছার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী। জবাবে রাষ্ট্রদূত জোয়াও তাবাজারা ডি অলিভিয়েরা জুনিয়র বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকারের তরফ থেকে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হলে তা গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা হবে।’

আলোচনায় উঠে আসে অনূর্ধ্ব-১৫ ও ১৭ পর্যায়ে বাংলাদেশের চার ফুটবলারের কথা। জগেন, নাহিদ, মিঠু ও নাজমুল- এ চার ফুটবলার ব্রাজিলে এক মাসের অনুশীলন শেষ করে দেশে ফিরেছেন। ব্রাজিলের মতো ফুটবল পরাশক্তির দেশে অনুশীলন করার সুবর্ণ সুযোগকে এবার বড় পরিসরে কাজে লাগাতে চান যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। নিতে চান দীর্ঘমেয়াদে নেইমারের দেশে অনুশীলনের সুযোগ। প্রতিমন্ত্রী রাসেল বলেন, ‘এক মাসেই যেহেতু তারা (চার দেশি ফুটবলার) এত উন্নতি করেছে তাই আমরা যদি দুই বছরের প্রশিক্ষণ নিতে পারি, তবে তা ফুটবলের উন্নয়নে বড় ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছি।’

বাংলাদেশের তরুণ ফুটবল প্রতিভাদের নিয়ে উচ্ছ্বসিত ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূতও। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে নতুন কোনো প্রস্তাব আসলে ভেবে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি, ‘বাংলাদেশের ফুটবলাররা খুব ভালো। আমাদের দেশের কোচরা তাদের অনেক প্রশংসা করেছে। আমি তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করছি। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে নতুন কোনো প্রস্তাব আসলে অবশ্যই আমরা তা নিয়ে আলোচনা করব।’

ব্রাজিলের স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, কূটনীতিক, সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন প্রশিক্ষণ নিয়ে সদ্য ব্রাজিল ফেরত চার তরুণ ফুটবলারও।

 

"