ব্যাটে ঝড় তুলে বিজয়ীর বেশে মাসাকাদজার বিদায়

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

দেশের হয়ে বিদায়ী ম্যাচ খেলতে নেমে সবাই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। যার ফলে অনেক ক্ষেত্রেই সেরাটা দিতে পারেন না। আশা করেন, সতীর্থরাই তাকে দারুণ কিছু উপহার দিক। তবে হ্যামিল্টন মাসাকাদজা যেন বাকিদের চেয়ে একটু আলাদা। আর তাই ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটাকে স্মরণীয় করতে রাখতে জ্বলে উঠলেন নিজেই।

যে ব্যাটটা দিয়ে দেশকে দীর্ঘদিন সেবা দিয়েছেন, সেটিকে তুলে রাখার আগে ধারটা দেখিয়েই দিলেন। ফেরার আগে পাঁচ ছক্কা আর চার বাউন্ডারিতে ৪২ বলে ৭১ তুলেছেন মাসাকাদজা। তার ব্যাটে ভর করেই কাল চট্টগ্রামের জহুর আহমেদে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ৭ উইকেটের দারুণ পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। আফগানদের ছুঁড়ে দেওয়া ১৫৬ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যটা জিম্বাবুয়েনরা টপকে গেছে ৩ বল অক্ষত রেখে।

এর আগে শুরুর ১০ ওভারে ম্যাচের সবকিছুই হলো আফগানিস্তানের মন মতো। কিন্তু শেষের দশ ওভারে জিম্বাবুয়ে বেশ ভালভাবেই ফিরেছে। ২০ ওভারের দুই অর্ধে দুদলের এই ভারসাম্যে আফগানিস্তানের ইনিংস থেমে গেছে ৮ উইকেটে ১৫৫ রানে।

আফগান ইনিংসে ব্যাট হাতে সেরা সময় কাটে ওপেনার রহমানউল্লাহ গুরবাজের। ৪৭ বলে ৪ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় ৬১ রান করেন তিনি। টি- টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এটি তার প্রথম হাফসেঞ্চুরি। আর জিম্বাবুয়ের বোলিংয়ের নায়ক ক্রিস্টোফার এমপফু। ক্যারিয়ার সেরা ৩০ রানে ৪ উইকেট শিকার করেন ডানহাতি এই পেসার।

টসে জিতে আফগানিস্তান প্রথম পাঁচ ও দশ ওভারে যেভাবে ঝড়ো শুরু করেছিলো আফগানিস্তান সেই ‘ঝড়কে’ ঠিকই কাবু করে ফেলে! শেষের ১০ ওভারে মাত্র ৭১ রান তুলে আফগানিস্তান। এই সময় হারায় তারা ৭ উইকেট। দুর্দান্ত ভঙ্গিতে খেলায় ফিরে আসে জিম্বাবুয়ে। আর এই পর্বে জিম্বাবুয়ের বোলিং তারকা এমপফু। তবে ম্যাচ শেষে সত্যিকারের তারকা তো বিদায়ী মাসাকাদজাই।

 

"