টি-টোয়েন্টি বলেই আশাবাদী বাংলাদেশ

প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। এ টুর্নামেন্টে শিরোপা ছাড়া বিকল্প কিছুই ভাবছে না টাইগাররা। তিন দলের এ আসরে রয়েছে আফগানিস্তানও। যাদের কাছে সদ্যই ঘরের মাঠে একমাত্র টেস্ট ম্যাচে নাস্তানুবাদ হয়েছে তারা। কিন্তু এসব নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ বাংলাদেশ দলের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। সাদা বলের ম্যাচ বলেই জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী প্রোটিয়া প্রশিক্ষক।

চট্টগ্রাম টেস্টে আফগানদের বিপক্ষে বাজেভাবেই হেরেছে বাংলাদেশ। বৃষ্টিও বাঁচাতে পারেনি তাদের। সে স্মৃতি একেবারেই তরতাজা। সপ্তাহ না ঘুরতেই এবার কুড়ি ওভারের সিরিজে মাঠে নামতে হচ্ছে টাইগারদের। কিন্তু সংবাদ সম্মেলনে বেশ আত্মবিশ্বাসীই দেখা গেল ডমিঙ্গোকে, ‘যখন সাদা বলের খেলা আসে, বাংলাদেশ তাদের দিনে যে কোনো দলকে হারাতে পারে। আমাদের দলে কিছু বিশ্বমানের পারফর্মার রয়েছে। দলের খেলোয়াড়দের অভিজ্ঞতার দিকে তাকান। ৫০ ওভারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দ্বিতীয় অভিজ্ঞ দল ছিল। এ দলে দক্ষতার কোনো ঘাটতি নেই।’

সাদা বলের খেলা হলেও এই সিরিজটি তো আর ওয়ানডে সংস্করণ নয়। ওয়ানডেতে বাংলাদেশ অনেক আগেই জায়ান্ট কিলারের তকমা পেলেও টি-টোয়েন্টিতে এখনও সাদামাটা দল। এ সংস্করণে তাদের রেকর্ড খুব একটা ভালো নয়। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তো সাকিব-মুশফিকদের ইতিহাস আরো শোচনীয়। চার ম্যাচের তিনটিতেই হেরেছে তারা। কিন্তু পুরোনো কোন রেকর্ডকেই পাত্তা দিলেন না ডমিঙ্গো। নিজেদের সেরাটা দিতে পারলে বাংলাদেশকে হারানো সহজ নয় বলে জানালেন কোচ, ‘আমার মনে হয়, আমরা যদি সেরাটা খেলতে পারি, তাহলে আমাদের হারানো খুব কঠিন হয়ে যাবে।’

তবে টাইগারদের আজকের প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাজদার কণ্ঠে উল্টো সুর। ডমিঙ্গো যতই বলুন না কেন, বাংলাদেশকে হারানো কঠিন; মাসাকাদজা কিন্তু কাজটাকে সহজ বলেই মানছেন। কাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক বলেন, ‘আফগানিস্তান দারুণ টি-টোয়েন্টি খেলছে। আর বাংলাদেশ খেলবে ঘরের মাটিতে। আমি বলব দুটো দলই শক্তিশালী। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমাদেরও সাফল্য আছে। আমার মনে হয়, বাংলাদেশে (অতীতে) আমরা বেশ ভালো টি-টোয়েন্টি খেলেছি। এবারও তাদের হারানো খুব একটা কঠিন হবে না।’

অনেক প্রতিকূলতা অতিক্রম করে ‘ও ভাই’ ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিতে এসেছে জিম্বাবুয়ে। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডকে আইসিসি বরখাস্ত করার পর বেশ নাজুক অবস্থায় রয়েছে দলটি। সেদিক থেকে চিন্তা করলে জিম্বাবুয়ের ওপর চাপ থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই চাপকে পাত্তা না দিয়ে দেশের জন্য জয় তুলে নেওয়াতেই সব মনোযোগ দিতে চান জিম্বাবুয়েন অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ম্যাচের আগের দিন মিরপুরে অনুশীলন করে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে সফরকারীরা। এর আগে বুধবার প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে অনায়াস জয় পেয়েছে তারা। তাইতো সিরিজের প্রাক্কালে মাসাকাদজা আত্মবিশ্বাসী হয়েই মুখ নাড়ালেন।

৩৬ বছর বয়সি এই দীর্ঘদেহী ক্রিকেটারও মনে করেন, টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটটা সংক্ষিপ্ত বলেই এই ফরম্যাটে যে কোনো দলকেই হারানো সম্ভব। মাসাকাদজার ভাষ্য, ‘ফরম্যাট যত ছোট হবে দলগুলোর ব্যবধান ততই কমে আসবে। টি-টোয়েন্টি খেলাটি এমন- যে কেউ একাই ম্যাচটি টেনে নিতে পারে ও ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। এই রকম খেলোয়াড় আমাদের দলে আছে, যে একাই খেলাটি আমাদের দিকে এনে দিতে পারে।’

গেল কমাসের দুঃসহ স্মৃতির কথা তুলে ধরে জিম্বাবুয়েন দলনেতা বলেন, ‘পর্দার আড়ালে অনেক কিছু ঘটেছে। সেসব বিষয় নিয়ে আমরা এখন মাথা ঘামাচ্ছি না। ক্রিকেটার হিসেবে আমরা জানি আমাদের মাঠে যেতে হবে, ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। বোর্ডে কী হয়েছে, কী ঘটেছে সেটা দেখার বিষয়টা আমাদের না। আমাদের প্রথম এবং প্রধান কাজটা হলো নিজেদের খেলার প্রতি মনোযোগী হওয়া ও দেশের জন্য ভালো ক্রিকেট খেলা।’ দেশের প্রতি আনুগত্য প্রদর্শন আর ভালো ক্রিকেট খেলে দায়িত্ব পালনের কাজটা হয়তো আজ থেকেই করতে চাইছে জিম্বাবুয়ে!

আজকের খেলা

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে

সরাসরি, সন্ধ্যা ৬.৩০টা;

গাজী টিভি, স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ১

"