বঙ্গবন্ধুর নামে বিপিএল

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) এ বছর হবে কী হবে না, এ নিয়ে নানা কথাই শোনা যাচ্ছিল কদিন ধরে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নিশ্চিত করলেন, বিপিএল এ বছর নির্ধারিত সময়েই হবে। তবে নতুনভাবে।

নতুন ধারার বিপিএলে থাকছে না কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকবে স্বয়ং বিসিবি। নতুন নামকরণও করা হয়েছে এই টুর্নামেন্টের। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এবারের আসরটির নাম হবে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এ তথ্য জানিয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন।

বিসিবির সঙ্গে বর্তমান ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর চার বছরের চুক্তি শেষ হয়েছে। নতুন করে চুক্তির আগে গত মাসে ধাপে ধাপে প্রতিটি দলের স্বত্বাধিকারীদের সঙ্গে বৈঠক করে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি নিজেদের মতামত জানিয়েছে বিসিবিকে।

সবার মতামত জেনে বিসিবি সিদ্ধান্ত নিয়েছে এ বছর অন্তত ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-২০ টুর্নামেন্ট আয়োজন সম্ভব নয়। এ ব্যাপারে নাজমুল হাসান পাপনের ভাষ্য, ‘বিপিএলের প্রথম পর্ব শেষ। নতুন চুক্তি করতে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে বসেছিলাম। কয়েকটা ফ্র্যাঞ্চাইজির বেশ কিছু দাবি-দাওয়া আছে। ওই দাবিগুলো আমাদের মূল কাঠামোর সঙ্গে সাংঘর্ষিক। কিছু ফ্র্যাঞ্চাইজি দাবি করছে, এক বছরে দুটি বিপিএল তারা চায় না। খেলবে না সেটি অবশ্য বলেনি। ওদের ওপর চাপ বেশি পড়ে যাবে। সবকিছু চিন্তা করে ঠিক করেছি এবারের বিপিএল আমরাই (বিসিবি) চালাব। টুর্নামেন্টটা আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক করছি না।’

এখন প্রশ্ন হচ্ছেÑ সব দলের মালিক যদি বিসিবিই হয়, তবে খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক, থাকা-খাওয়া, যাতায়াত খরচ কীভাবে দেওয়া হবে, দলের নাম কেমন হবে, কোচিং স্টাফ কীভাবে ঠিক হবে? সবকিছুর বিস্তারিত ধারণা দিয়েছেন বিসিবি বস, ‘এবারের বিপিএলটা আমরা বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করব। টুর্নামেন্ট তার নামেই হবে। সব দলই ঠিক থাকবে শুধু ম্যানেজমেন্টের অংশ বিসিবি দেখবে। খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক, থাকা-খাওয়া, যাতায়াত সবই বিসিবি তত্ত্বাবধান করবে। এতে আশা করি সবাই খুশি হবে। অনেকটা বিগ ব্যাশের মতো।’

ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক না হলেও কেউ যদি কোনো দলকে স্পনসর করতে চায়, সে পথ খোলা থাকছে। দলগুলোর নাম আপাতত আগের মতোই থাকছে। আগের মতো নিলাম হবে, টুর্নামেন্ট নির্ধারিত সময়েই শুরু হবে। কোচিং স্টাফ সরবরাহ করবে বিসিবি। তবে কোনো স্পনসর যদি সরাসরি চুক্তি করে বিদেশি খেলোয়াড় আনতে চায়, সেটিতে বাধা থাকবে না।

বোর্ডপ্রধান পরিষ্কার জানিয়েছেন, এ বছর কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে চুক্তিতে তারা যাচ্ছে না। তাদের যে দাবি-দাওয়া রয়েছে, সেটি সংক্ষিপ্ত সময়ে মানা সম্ভব নয় বলেই এবার বিশাল অঙ্কের টাকা খরচ করে বিপিএল নিজেরাই আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি।

 

"