বড় জয় পর্তুগাল ফ্রান্স-ইংল্যান্ডের

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

২০২০ ইউরো যোগ্যতা অর্জন পর্বের তৃতীয় ম্যাচে জয় পেল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল। প্রথম দুটি ম্যাচ অমিমাংসিতভাবে শেষ করার পর কাল সার্বিয়াকে ৪-২ গোলে হারাল গতবারের চ্যাম্পিয়নরা।

গত মার্চে ঘরের মাঠে এই সার্বিয়ার বিরুদ্ধে গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে আটকে গিয়েছিল পর্তুগাল। কাল যদিও ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের হয়ে জালে বল জড়ালেন উইলিয়াম কার্ভালহো, গন্সালো গুয়েদেস, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও বার্নার্দো সিলভা। প্রথমার্ধে এদিন আধিপত্য নিয়ে খেললেও গোলের মুখ খুলতে প্রায় ৪২ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় পর্তুগালকে। বিপক্ষ গোলরক্ষকের ভুলের সুযোগ নিয়ে বক্সের মধ্যে সুযোগ-সন্ধানী গোল করে যান কার্ভালহো।

৫৮ মিনিটে বক্সের সামান্য বাইরে বল পেয়ে একক দক্ষতায় সার্বিয়া রক্ষণকে বোকা বানান গুয়েদেস। এরপর বাঁ-পায়ের নিখুঁত প্লেসিংয়ে ব্যবধান ২-০ করেন তিনি। ৬৮ মিনিটে কর্নার থেকে সার্বিয়ার হয়ে ব্যবধান কমান মিলেনকোভিচ। কিন্তু ৮০ মিনিটে বার্নার্দো সিলভার থ্রু বল ধরে দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন দলনায়ক রোনালদো। একই সঙ্গে কার্যত নিশ্চিত হয়ে যায় পর্তুগালের জয়। যদিও ৮৪ মিনিটে ফের একবার ব্যবধান কমিয়ে আনে সার্বিয়া। কিন্তু ছাড়বার পাত্র নয় পর্তুগালও। ৮৫ মিনিটে মৌতিনহোর পাস থেকে সার্বিয়ার কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন সিলভা।

অন্যদিকে ‘এ’ গ্রুপে দুরন্ত গতিতে এগিয়ে চলছে ইংল্যান্ড। হ্যারি কেনের দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে বুলগেরিয়ার জালে ৪ গোল দিয়েছে তারা। জিতেছে ৪-০ গোলে। এই জয়ে ৩ ম্যাচের সবগুলোতে জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে ইংলিশরা।

লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে সফরকারী বুলগেরিয়াকে পুরোপুরি বিধ্বস্ত করে ছেড়েছে ইংলিশরা। ম্যাচের ২৪ মিনিটে প্রথম গোল করেন হ্যারি কেন। এই ১-০ গোলেই প্রথমার্ধ শেষ করে ইংল্যান্ড। দ্বিতীয়ার্ধে আবারও দুরন্ত হয়ে উঠেন হ্যারি কেন। ৪৯ মিনিটে আবারও গোল করেন তিনি। ৫৫ মিনিটে দলের হয়ে তৃতীয় গোল করেন রাহিম স্টার্লিং। ৭৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে হ্যাটট্রিক করেন হ্যারি কেন তাতে বড় জয় নিয়ে মাঠে ছাড়েন ইংলিশরা।

এদিক ‘এইচ’ গ্রুপের খেলায় আলবেনিয়াকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে ফ্রান্স। অবশ্য ম্যাচের আগে অঘটনের ঘটনার জন্ম দেন আয়োজকরা। যখন আলবেনিয়ার জাতীয় সংগীত প্রচার হওয়ার কথা ছিল তার বদলে ভুলে অ্যান্ডোরার জাতীয় সংগীত ছেড়ে বসেন তারা। এমন ঘটনায় বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন আলবেনিয়ার খেলোয়াড়রাও। এমন ঘটনায় ১০ মিনিট দেরিতে শুরু হয় খেলা।

তারপর ম্যাচটি মাঠে গড়ালে আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে ফ্রান্স। কোমান ৮ মিনিটে এগিয়ে নেন দলকে। ২৭ মিনিটে জিরুদের গোলে দেখা মেলে দ্বিতীয় গোলের। ৬৮ মিনিটে জোড়া গোলটি করেন কোমান। ৮৫ মিনিটে ইকোনের গোলে চতুর্থ গোলটি পায় তারা। অবশ্য শেষ দিকে পেনাল্টি থেকে একটি গোল শোধ দেয় আলবেনিয়া। এই জয়ে ৫ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ফ্রান্স।

 

"