নেইমারকে থাকতে হচ্ছে প্যারিসেই!

প্রকাশ : ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

নিজ হাতেই কি তবে নিজের ক্যারিয়ারটাকে ধ্বংস করে দিলেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার জুনিয়র? কেন হঠাৎ করে তিনি ২০১৭ সালে প্যারিসে পাড়ি জমালেন, সেটা অনেকের কাছেই বোধগম্য নয়। কেউ বলে থাকেন তারা বাবা এবং এজেন্ট সিনিয়র নেইমারের লোভের কারণেই অঢেল অর্থপ্রাপ্তির আশায় বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে নাম লেখান নেইমার।

লোভে পড়ে হোক কিংবা মেসির ছায়া থেকে বের হওয়ার খায়েসÑ পিএসজিতে যাওয়ার পরই নেইমার বুঝতে পারলেন এই ক্লাব তার জন্য নয়। তিনি ভুল করে ফেলেছেন। সেই সঙ্গে দুই মৌসুমেই দুবার জটিল ইনজুরিতে পড়ে ক্লাবকে পুরোপুরি সার্ভিসই দিতে পারেননি। শুধু কী তাই? বেপরোয়া জীবনযাপনে অব্যস্ত নেইমার মাঠের চেয়ে মাঠের বাইরের ঘটনাতেই পত্রিকার শিরোনাম হয়েছেন সবচেয়ে বেশি। যে কারণে মুখ ফুটে প্যারিস ছাড়ার কথা বলেও নেইমার অন্য কারো দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারেননি। না বার্সেলোনা, না রিয়াল মাদ্রিদ, না ইউরোপের অন্য কোনো ক্লাবের।

নেইমারের থেকে ক্লাবগুলোর মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার কারণ চড়া মূল্য। পিএসজি তার দাম হাঁকিয়ে বসে আছে ২৫০ মিলিয়ন ইউরো (প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকা)! চোটপ্রবণ একজন ফুটবলারকে এত দাম দিয়ে এখন আর কেউই কিনতে চাইছে না। গত মৌসুমের শেষ দিক থেকে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে, নেইমার থাকতে চান না পিএসজিতে। গুঞ্জনকে তিনি নিজেই সত্যি প্রমাণ করেন। পুরোনো ঠিকানা বার্সেলোনায় ফিরে যেতে চান বলে আগ্রহও প্রকাশ করেন। সম্প্রতি নেইমারের দলবদল নিয়ে নানা নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে। কয়েকবার তো এমনও শোনা গেছে, বার্সা তাকে দলে নিয়ে নিয়েছে। কাতালান ক্লাবটি নেইমারকে ফিরে পেতে পিএসজির সঙ্গে দর-কষাকষিও করেছে। কিন্তু সমঝোতা হয়নি। শোনা গেছে, রিয়াল মাদ্রিদের আগ্রহের কথা। কিন্তু সেই গুঞ্জন দানা বাঁধতে শুরু করণেও রিয়াল আনুষ্ঠানিকভাবে পিএসজিকে কোনো প্রস্তাব দেয়নি। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে লা লিগার মৌসুম। ওদিকে মাঠে গড়িয়েছে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানও। পিএসজি নেইমারকে ছাড়াই প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে। গেল রাতে রেঁনেও অ্যাওয়ে ম্যাচেও তার খেলার সম্ভাবনা ছিল ক্ষীণ।

এমন পরিস্থিতিতে নেইমারকে নেওয়ার জন্য বার্সা দর-কষাকষি করেছে কুতিনহো ও ডেম্বেলেকে বিনিময় হিসেবে। সেই কুতিনহোকে দুদিন আগেই বায়ার্ন মিউনিখকে কর্জ দিয়েছে বার্সা। ফলে নেইমারের জন্য ন্যু ক্যাম্পের দরজা একেবারেই বন্ধ হয়ে গেছে। অন্যদিকে, রিয়াল মাদ্রিদের আগ্রহেও ভাটা পড়েছে। তারা কোনো আওয়াজ ছাড়াই লা লিগা শুরু করে দিয়েছে।

স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কা জানিয়েছে, নেইমার এরই মধ্যে পিএসজিতে তার সতীর্থদের সঙ্গে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন। কোনো ক্লাবেই যখন যাওয়া হচ্ছে না, তখন আর বসে থেকে লাভ কী? স্প্যানিশ ও ফ্রেঞ্চ ফুটবলের গ্রীষ্মকালীন দলবদল শেষ হচ্ছে আগামী ২ সেপ্টেম্বর। তার মানে, হাতে মাত্র ১৩ দিন। এই সময়সীমার মধ্যে ব্রাজিলিয়ান পোস্টারবয়কে কিনতে কেউ আগ্রহ না দেখালে শীতকালীন দলবদলের আগ পর্যন্ত প্যারিসেই পড়ে থাকতে হবে নেইমারকে।

 

"