পুরোনো পরিচালকদের পুনর্বহাল

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

বহিষ্কৃত গভর্নিং বডিকে পুনর্বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জিম্বাবুয়ের স্পোর্টস এবং রিক্রিয়েশন কমিশন (এসআরসি)। দায়িত্বে থাকা জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের (জেডসি) পরিচালকদের বহিষ্কার করে গত মাসে অস্থায়ী কমিটি দেওয়া হয়। এর আগে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ থাকার অভিযোগ এনে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট বোর্ডের সদস্য পদ স্থগিত করে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। বোর্ডের চেয়ারম্যান তাবেংওয়া মুকুলানির নেতৃত্বাধীন গঠিত বোর্ড ‘নিঃশর্তভাবে পুনর্বহাল’ করতে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটকে ৮ অক্টোবর পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দেয় আইসিসি। আপাতত সেই পথে হাঁটছে দেশটির ক্রিকেট। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের জন্য সুখবর হচ্ছে, অন্তর্বর্তীকালীন কমিটি ভেঙে সাময়িক বরখাস্ত কর্মকর্তাদের ফের ফিরিয়ে আনা হচ্ছে বোর্ডে।

বৃহস্পতিবার এসআরসির তরফে ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে জানানো হয়, ‘আদালতের আদেশ অনুসারে, এসআরসি ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিভমোর মাকোনিসহ সব জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের পরিচালকদের ওপর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নিয়েছে এবং অস্থায়ী কমিটি বোর্ড পরিচালনার দায়িত্ব বন্ধ রেখেছে।’

আইসিসির স্থগিতাদেশ পাওয়ার পর জুনে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটকে নিষিদ্ধ করে এসআরসি। দুর্নীতির দায়ে বহিষ্কার করা হয় গিভমোর মাকোনিকে। সদস্যপদ স্থগিত হওয়ায় দুর্দশা নেমে আসে দেশটির পুরুষ ও নারী ক্রিকেটে। আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বাছাইপর্ব থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেয় দেশটির নারী ক্রিকেট দল। যার কারণে কপাল খোলে নামিবিয়ার। পুরুষ ক্রিকেটের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বেও খেলতে পারবে না জিম্বাবুয়ে। তাদের বদলে সুযোগ পাচ্ছে আফ্রিকার উঠতি দল নাইজেরিয়া। তবে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটের প্রতি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। আগামী সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ-আফগানিস্তানের সঙ্গে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে দলটি। বিসিবির পক্ষ থেকে জেডসিকে কোটি টাকা দেওয়ারও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

"