ফুটবলকে বিদায় বললেন ফরলান

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ফুটবলে দীর্ঘ ক্যারিয়ার শেষে অবশেষে অবসরের ঘোষণা দিলেন দিয়েগো ফরলান। তিনি একাধারে উরুগুয়ে, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মতো দলের হয়ে নিজের প্রতিভা জানান দিয়েছিলেন।

বিশ্বব্যাপী ১০টি ক্লাবের প্রতিনিধিত্ব করা ৪০ বছর বয়সি ফরলান সর্বশেষ হংকংভিত্তিক ক্লাব কিটেচের হয়ে খেলেছেন। গত বছরের মে মাসে তিনি ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটি খেলেন।

তারকা এ স্ট্রাইকার, এ ছাড়া ইন্টার মিলান ও ভিয়ারিয়ালের মতো দলে খেলেছেন। তবে তার ইউরোপীয় ক্যারিয়ারের সেরা সময়টা কেটেছে স্প্যানিশ ক্লাব অ্যাটলেটিকোর হয়ে।

অবসর প্রসঙ্গে ফোরলান বলেন, ‘এটা সহজ ব্যাপার ছিল না। আমি চাইনি এমন সময় আসুক। তবে আমি এটাও জানি এ সময় আসবে। পেশাদারি ফুটবল আর না খেলার সিদ্ধান্ত নিলাম।’

১৯৯৭ সালে আর্জেন্টাইন ক্লাব ইন্দেপেন্দিয়েন্তের হয়ে ক্লাব ফুটবলে খেলা শুরু করেন ফরলান। পরে ২০০২ সালে ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানইউতে যোগ দেন তিনি। আর ২০০২-০৩ মৌসুমেই তিনি রেড ডেভিলসদের হয়ে প্রিমিয়ার লিগ ও এফএ কাপ জেতেন।

২০০৪ সালে ভিয়ারিয়ালে যাওয়া তারকা স্ট্রাইকার ফরলানের স্প্যানিশ যাত্রা শুরু হয়। ভিয়ারিয়াল ও অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে তিনি ২৪০ লিগ ম্যাচে ১২৮টি গোল করেন। ২০০৯-১০ মৌসুমে জেতেন ইউরোপা লিগ।

এদিকে ইউরোপা ফরলানের সবচেয়ে বেশি সফলতা আসে অ্যাটলেটিকোর হয়ে ২০০৮-০৯ মৌসুমে। সেবার তিনি ৩৩ লিগ ম্যাচে ৩২টি গোল করে চমক লাগিয়ে দেন। বার্সেলোনার স্যামুয়েল ইতো ও ভ্যালেন্সিয়ার ডেভিড ভিয়াকে পেছনে ফেলে লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হন।

পরে ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টারের হয়ে লম্বা সময় খেলে ফরলান ইন্টারন্যাসিওনাল, সেরেজো ওসাকা, পেনারোল, মুম্বাই সিটি ও সর্বশেষ কিটেচের হয়ে মাঠ মাতান।

উরুগুয়ে জাতীয় দলের হয়ে দারুণ সময় কাটিয়েছেন ফোরলান। তিনি দেশটির ইতিহাসে সেরা ফুটবলার হিসেবেও সব সময় বিবেচিত হবেন। ১১২টি ম্যাচ খেলে তিনি করেছেন ৩৬টি গোল। ২০১১ সালে জিতেছেন কোপা আমেরিকা।

তবে জাতীয় দলে ফরলানের সেরা সময়টা ছিল ২০১০ সালে। সেবার তিনি দলকে সেমিফাইনালে তুলতে কার্যকর ভূমিকা রাখেন। সেবার টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার ‘গোল্ডেন বল’ জয়ের পাশাপাশি সর্বোচ্চ গোলে টমাস মুলার, ওয়েসলি স্নাইডার ও ডেভিড ভিয়ার সঙ্গে ‘গোল্ডেন বুট’ পুরস্কার ভাগাভাগি করেন।

 

"