শাস্ত্রীই থাকছেন ভারতের কোচ!

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর শেষ হওয়া মাত্র প্রধান কোচ খুঁজতে থাকে ভারতীয় ক্রিকেট বিসিসিআই। সে অনুযায়ী কোচ চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হলে জমা পড়ে দুই হাজারেরও বেশি আবেদন। কিন্তু বিদেশি কোচে সায় নেই কোহলিদের। তাই নতুন করে ভাবতে হয় নির্বাচকদের। তবে হয়তো এবার সে ধোঁয়াশা কাটছে। ভারতের হেড কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীকে ঘিরে যে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল তা অনেকটা কেটে গেছে অনেকটা। ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটির এক সদস্যের বক্তব্যে ইঙ্গিত মিলছে কোহলিদের হেড কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীর নামই প্রায় চূড়ান্ত। কারণ বিদেশি কোচ নিয়োগে তাদের সায় না থাকায় বোর্ড এ সিদ্ধান্তের দিকেই এগোচ্ছে।

কোহলি-রোহিতদের কোচ বেছে নিতে কপিল দেবের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ক্রিকেট কমিটি কাজ করছে। কমিটিতে অন্য দুজন হলেন অংশুমান গায়কোয়াড এবং শান্তা রঙ্গস্বামী। এরই মধ্যে ভারতের হেড কোচ নির্বাচনের জন্য বোর্ডের প্রশাসনিক কমিটির ছাড়পত্র পেয়ে গেছে ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটি।

সেই ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটির এক সদস্য সংবাদ সংস্থা আইএএনএসকে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমরা বিদেশি কোচ আনতে চাই না। হ্যাঁ যদি গ্যারি কারস্টেনের মতো কেউ আবেদন করতেন ভেবে দেখতাম। আর সেটা যদি না হয়, তাহলে একজন ভারতীয় কোচই অগ্রাধিকার পাবে। তার ওপর ভারতীয় কোচের অধীনে ভালো ফল করছে দল। তো কেন কোচ বদল করতে যাব? এখন যে অবস্থায় দাঁড়িয়ে তাতে কোচ হিসেবে শাস্ত্রীই ফেভারিট। হয়তো ওর হাতেই নতুন চুক্তি তুলে দেওয়া হবে।’

কয়েক দিন আগে বোর্ডের এক শীর্ষকর্তাও শাস্ত্রীরই কোচ হিসেবে থাকা উচিত বলে জানিয়েছিলেন। ক্যারিবিয়ান সফরে উড়ে যাওয়ার আগে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিও কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীর জন্যই সওয়াল করেছিলেন।

অতীতে নিয়ম ছিল নতুন কোচ বাছাইয়ের জন্য দলের অধিনায়কের মতামত নেওয়া হতো। কিন্তু এবারে আর সেই কাজটা করা হবে না। এবারে বিসিসিআই আগে থেকেই বিরাট কোহলির সেই ডানা ছেঁটে ফেলে দিয়েছিলেন।

তাই নতুন কোচ নির্বাচনে বিরাট কোহলির কোনো ভূমিকা থাকছে না। এর আগে কোচ নির্বাচনের দায়িত্বে¡ ছিলেন শচীন-সৌরভ-লক্ষ্মণ। এবার তাদের সরিয়ে কপিল দেবের হাতে সেই দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছে।

"