ক্রিকেটে বদলি খেলোয়াড়ের নতুন নিয়ম

প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামানোর নিয়ম পাস করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। এখন থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব সংস্করণ ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিয়মটি কার্যকর হবে। লন্ডনে আইসিসির চলতি বার্ষিক সম্মেলনে পরশু এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সংস্থাটির নীতিনির্ধারকরা।

নিয়মটি পাস করার আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে দুই বছর মহড়া দিয়েছে আইসিসি। মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামানো হয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটে। আগেই জানা গিয়েছিল, আইসিসি এ নিয়ম পাস করলে তা চালু হবে অ্যাশেজ সিরিজ থেকে। সে অনুযায়ী, ১ আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া ছাইদানির সিরিজ থেকেই চালু হচ্ছে নিয়মটি। এবারের অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে শুরু হচ্ছে ২০১৯-২১ মেয়াদের বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ।

আইসিসির বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বদলি নামানোর সিদ্ধান্ত চালু থাকবে এবং সেই সিদ্ধান্ত নেবেন দলের চিকিৎসা প্রতিনিধি (ফিজিও)। বদলি খেলোয়াড়কে অভিন্ন হতে হবে এবং ম্যাচ রেফারির অনুমোদন লাগবে।’ এর আগে জানা গিয়েছিল, শুধু টেস্ট ক্রিকেটে মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামানোর নিয়ম চালু হতে পারে। কিন্তু আইসিসি ছেলে ও মেয়েদের ক্রিকেটের সব সংস্করণেই এ নিয়ম পাস করল।

মাথায় আঘাত পেলে বদলি খেলোয়াড় নামানোর আলোচনা বেশ কয়েক বছর ধরেই চলছে। ২০১৪ সালের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ফিলিপ হিউজ শেফিল্ড শিল্ডে ব্যাটিংয়ের সময় মাথায় আঘাত পেয়ে মারা যান। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) ওই ঘটনার তদন্ত করার পরই বিষয়টি সবার সামনে চলে আসে। আর ঘটনাটি এমন এক সময়ে ঘটেছিল, যখন বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনেও খেলোয়াড়দের মাথায় আঘাত পাওয়ার স্বল্পমেয়াদি এবং দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব নিয়ে সচেতন হয়ে উঠেছিল।

লন্ডনে বার্ষিক সম্মেলনে সেøা ওভার রেট নিয়েও একটি নিয়ম পাল্টানো হয়েছে। ‘অস্বাভাবিক’ সেøা ওভার রেট এবং তার পুনরাবৃত্তি ঘটলে এখন থেকে আর অধিনায়ক নিষিদ্ধ হবেন না। সেøা ওভার রেটের দায় নিতে হবে দলের সব খেলোয়াড়কে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, অধিনায়ক এবং তার সতীর্থদের একই অঙ্কের জরিমানা গুনতে হবে। এছাড়া বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে যে দল ওভার রেটে পিছিয়ে থাকবে, ম্যাচ শেষে প্রতিটি সেøা ওভারের জন্য কাটা হবে দুটি করে কমপিটিশন পয়েন্ট।

 

"