ওসাকাকে সরিয়ে শীর্ষে সেই বার্টি

প্রকাশ : ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

চলতি মাসের শুরুতে রোলা গাঁরোর ফাইনালে চেক প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ড সø্যাম জয়। দিন পনেরো পেরোতে না পেরোতেই বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়েও হাতেনাতে ফল পেলেন অস্ট্রেলিয়ার নারী টেনিসের নতুন বিস্ময় অ্যাশলে বার্টি। কাল জাপানের নাওমি ওসাকাকে সরিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রথম স্থান দখল করেন তিনি।

১৯৭৩ সালে মার্গারেট কোর্টের পর অস্ট্রেলিয়ার প্রথম নারী টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে ফরাসি ওপেন জিতে নেন বার্টি। শুধু লাল সুড়কির কোর্টেই নয়, গ্র্যান্ড সø্যাম আসরে ৪৬ বছরের খরা ভাঙেন বার্টি। রোববার বার্মিংহাম ক্লাসিকের ফাইনালে তার ডাবলস পার্টনার জুলিয়া জর্জেসকে হারানোর সঙ্গে সঙ্গে র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বর স্থান নিশ্চিত করেন বার্টি। ফাইনালে বার্টির পক্ষে ম্যাচের ফল ৬-৩, ৭-৫। এর আগে ১৯৭৬ শেষবার অস্ট্রেলিয়া নারী টেনিস প্লেয়ার হিসেবে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান দখল করেছিলেন গুলাগং কাউলি।

৪৩ বছর পর ফের নারীদের র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে কোনো এক অস্ট্রেলীয়। এমন কৃতিত্বের পর বার্টি জানান, ‘আমি ওনার ধারে-কাছেও নেই। তবে কাউলির সঙ্গে একইসঙ্গে আমার নাম উচ্চারিত হচ্ছে, এই অনুভূতি অতুলনীয়।

২০১৯ একটি দুর্দান্ত মৌসুম শুরুর পর পরশু ম্যাচ জয়ের সঙ্গে টানা ১২ ম্যাচ অপরাজিত থাকলেন ২৩ বছর বয়সি তরুণী। ৬টি ম্যাচ হারলেও চলতি বছরে ৩৬টি ম্যাচ নিজের দখলে রেখেছেন বার্টি। তবে খুব বেশিদিন আগেকার কথা নয়, যখন টেনিস ভুলে পেশাদার ক্রিকেটে মনোনিবেশ করেছিলেন বার্টি।

মেয়েদের বিগ ব্যাশ টুর্নামেন্টের অভিষেক মৌসুমে তাকে খেলতে দেখা গিয়েছিল ব্রিসবেন হিটের হয়ে। কিন্তু ২০১৬ সালে ভালোবাসার টানে ফের টেনিস সার্কিটে ফেরেন বার্টি। গত ৯ জুন ফরাসি ওপেনে ক্লে কোর্ট, এরপর পরশু বার্মিংহাম ক্লাসিক জিতে শীর্ষস্থান দখল করে নিজেই নিজেকে প্রমাণ করলেন বার্টি। অতএব শীর্ষ বাছাই হয়েই আগামী সপ্তাহে উইম্বলডন অভিযান শুরু করবেন এই অস্ট্রেলীয়।

"