লর্ডসে আজ ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া মহারণ

প্রকাশ : ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০

আরিফ সোহেল

বিশ্বকাপ আসর শুরুর আগে থেকেই প্রথম শিরোপা জয়ের মৌ মৌ গন্ধেই ভাসছিল ব্রিটিশরা। চলছিল সব ঠিকঠাকই। কিন্তু সেখানে হুট করেই আঘাত হেনে হুল বিঁধিয়েছে পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা। ফলে পাল্টে গিয়েছে নানা সমীকরণ। সেমিফাইনাল নিñিদ্র রাখতে এই ম্যাচে ইংল্যান্ডের সঙ্গে প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়াও জয়ে ব্যাকুল থাকবে। চলতি আসরের অন্যতম স্নায়ু উত্তেজক ম্যাচটি আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ক্রিকেটের পুণ্যভূমি লর্ডসে। রুদ্ধশ্বাস এই ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায়।

দারুণ শুরু করা স্বাগতিক ইংল্যান্ড দুই ম্যাচ হেরে বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছে। ফেভারিট হয়েও শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হারে মিডিয়ায় ঝড় উঠছে। চরম সমালোচনার আবহে থাকা এমন পরিবেশেবেই আজ ইয়েন মরগান মাঠে নামছে। প্রতিপক্ষ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়া। পরাজয়ের কালিমা থেকেই নিষ্কৃতি পেতে আজ মরিয়া হয়ে উঠবে ইংলিশরা। যদিও আসরে সেমিফাইনালের পথে ভালোভাবেই টিকে আছে স্বাগতিকরা। তবে পাকিস্তানের কাছে হারের পর শ্রীলঙ্কার কাছে লো স্কোরিং ম্যাচে পরাজয়ে কিছুটা ভিত নড়েচড়ে উঠে। এমনকী নানা সমীকরণে ইংল্যান্ডের বাদ পড়ার বিষয়টিও মিডিয়ায় চলে এসেছে।

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ওপেনিং ব্যাটসম্যান বর্তমান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার অবশ্য ইংল্যান্ডকে যথেষ্ট শক্তিশালীই মানেন। বলেছেন, ‘ইংল্যান্ড এখন বিশ্বের সেরা দল। বিশ্বকাপ শুরু হবার আগে থেকেই যে কয়টি ম্যাচের জন্য অপেক্ষায় ছিলাম এই ম্যাচটি তার মধ্যে অন্যতম।’ তিনি আরো বলেন, ‘জস বাটলার একজন অবিশ্বাস্য ক্রিকেটার। আমি তার ব্যাটিং খুব উপভোগ করি। সে বিশ্ব ক্রিকেটের নতুন ধোনি। সে একজন অসাধারণ অ্যাথলেট ও অবিশ্বাস্য ফিনিশার। ইংল্যান্ডের ব্যাটিং ইউনিট বেশ শক্তিশালী।’ লর্ডসে ঐতিহ্যগতভাবেই বিপুল দর্শকের সমাগম হয়। দর্শক নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান কোচ ল্যাঙ্গার বলেছেন, ‘সমর্থক কিংবা প্রতিপক্ষের ওপর আমাদের কোনো হাত নেই। আমরা শুধু নিজেদের ম্যাচের দিকেই মনোযোগী হতে চাই।

ইংল্যান্ডের দুর্দান্ত ব্যাটিং লাইনআপ তো থাকছেই। তবে এই ম্যাচে মাঠ মাতাতে পারেন তাদের পেসারত্রয়ী। লর্ডসে পেসাররাই এগিয়ে থাকেন। জোফরা আর্চার, মার্ক উড এবং লিয়ান প্লানকেট অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং উত্তেজনায় পানি ঢেলে দিতে পারেন। গুঁড়িয়ে দিতে পারেন অস্ট্রেলিয়ার টপঅর্ডার। মঈন আলিতে ঘূর্ণি জাদু নিয়ে থাকছেনই।

অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার জোরে বোলারের সংখ্যার সঙ্গে নাথান লিঁও কিংবা জাম্পা আজ মাঠে থাকছেন। প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, নাথান কালটারের সঙ্গে ম্যাক্সওয়েলও দুরন্ত গতির বোলার। যদিও অস্ট্রেলিয়া দলেও বেশ কয়েকজন ইন-ফর্ম ব্যাটসম্যান আছে। বিশেষ করে ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারকে নিয়ে আলাদা করে ইংল্যান্ডকে ভাবতেই হচ্ছে। স্টিভ স্মিথের ব্যাট থেকে আসছে রান। ফর্মটা আগের চেয়ে ভালো। আর চলতি বিশ্বকাপে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারির তালিকায় আছেন মিচেল স্টার্ক। ১৫ উইকেট নিয়ে তার সঙ্গে তালিকায় আছেন রয়েছে ইংল্যান্ডের জোফরা আর্চার এবং পাকিস্তানের মোহাম্মদ আমির। আজ লড়াই হবে স্টার্ক-আর্চারেরও। বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া এগিয়ে জয়-পরাজয়ের সমীকরণে। সেখানেই তারা আলোর পথ খুঁজছে। মুখোমুখি লড়াই অস্ট্রেলিয়ার ৮ জয়ের বিপরীতে ইংল্যান্ড জিতেছে মাত্র ৫ ম্যাচ। এই সমীকরণেই অনেকে অস্ট্রেলিয়াকেই এগিয়ে রাখছেন।

"