বাঁকা চোখে

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

অবসর

 

অবসর নিয়েই ফেললেন মালয়েশিয়ার কিংবদন্তি ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় লি চং উই। লি টানা ৩৪৮ সপ্তাহ বিশ্বের এক নম্বর আসন ধরে রাখার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। কিন্তু কোর্টের রাজত্বে ক্যানসার এসে দানা বেঁধেছিল। যুবরাজের মতো মরণব্যাধি ক্যানসারকে সরিয়ে কোর্টে ফেরার লড়াইয়ে ছিলেন। আশা করা হচ্ছিল তিনি দ্রুত ফিরে আসবেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার অবসরের ঘোষণা দেন। লি বলেন, ‘অবসরের সিদ্ধান্ত নেওয়া খুব কঠিন ছিল। আমি সত্যিই এই খেলাকে ভালোবাসি। কিন্তু ব্যাডমিন্টন খেলতে গেলে অনেক কিছু মেনে চলতে হয়। গত ১৯ বছর ধরে আমায় যেভাবে সমর্থন করে এসেছেন মালয়েশিয়ার মানুষ, তার জন্য ধন্যবাদ।’ গত বছর নাকের ক্যানসারে আক্রান্ত হন লি। ওই বছরের এপ্রিল থেকে তিনি অনুশীলন করতে পারেননি। অলিম্পিকে তিনবারের রৌপ্যজয়ী বলেছেন, ‘এবার বিশ্রাম করতে চাই, পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চাই।’

 

উদ্বিগ্ন

 

ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে আগেভাগেই উদ্বিগ্ন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। বিশেষ করে দলের ফিল্ডিং নিয়ে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি। বলেছেন, ‘ভারতের মতো শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিপক্ষে জিততে হলে প্রতিটি বিভাগেই সেরা পারফর্ম করতে হবে। কিন্তু এই মুহূর্তে আমাদের ফিল্ডিং সেই কাক্সিক্ষত উচ্চতায় পৌঁছায়নি।’ আগামীকাল রোববার চিরশত্রু ভারতের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ পাকিস্তানের। বিশ্বকাপে চারটি ম্যাচে একটিতে জয়, দুটিতে হার ও বৃষ্টি ভাসিয়ে নিয়েছে একটি ম্যাচ। ৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবলের অষ্টম স্থানে রয়েছে ১৯৯২ সালের চ্যাম্পিয়নরা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ক্যাচ ফেলার মহড়ার পাশাপাশি ওভার থ্রোতেও বেশকিছু রানও দিয়েছে পাকিস্তান। সরফরাজের চোখ এখন ফিল্ডিংয়েই বেশি ঝুঁকছে। বলেছেন, ‘ফিল্ডিংয়ে আরো উন্নতি করতে হবে আমাদের। ম্যাচে ফিল্ডিং বড় ফারাক গড়ে দিতে পারে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে স্রেফ ফিল্ডিংয়ের জন্যই আমরা হেরেছি। এবার তা যেন আর না হয়।’

 

কুরুচিপূর্ণ

 

বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচকে ঘিরে উত্তেজনা তুঙ্গে। বাইশ গজে ম্যাচ গড়ানোর আগেই উত্তাপ বাড়ছে ক্রমশ। সমর্থকদের পাশাপাশি নেমে পড়েছে দুই দেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলোও। যেখানে বিজ্ঞাপন উসকে দিচ্ছে স্নায়ু-উত্তেজক আলোচনা। সেখানেই বেজায় চটেছেন সানিয়া মির্জা। বলেছেন, ‘ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের আগে এই ধরনের কুরুচিকর বিজ্ঞাপনের কোনো মানে হয় না। কারণ এটা শুধু একটি ক্রিকেট ম্যাচ। তবে কেউ যদি এটি ক্রিকেটের চেয়েও বেশি মনে করেন; তারা ভুল করবেন।’ সানিয়ার এই বক্তব্যেও মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানে এক বিজ্ঞাপনে একজনকে অভিনন্দন সাজিয়ে বলানো হয়েছে, ‘আমি দুঃখিত। এই ব্যাপারে আমি কিছুই বলতে পারব না।’ অন্যদিকে এক বিজ্ঞাপনে ভারতকে বাবা, পাকিস্তানকে ছেলে দেখানো হচ্ছে।

 

"