পেশিশক্তির বিপরীতে বুদ্ধিমত্তা

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৯, ০০:০০

সাহিদ রহমান অরিন

দুই পরাশক্তি দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপের শুরুটা চমৎকার হয়েছে ভারতের। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিনটি বিভাগেই চমকপ্রদ পারফর্ম করেছেন বিরাট কোহলি অ্যান্ড কোং। অনেকে আগেভাগেই বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতকে তুলে দিয়েছেন। যদিও অধিনায়ক কোহলির মতে, সেমিফাইনাল কিংবা ফাইনালের ব্যাপারে এখনই কথা বলা উচিত নয়।

বৃহস্পতিবার নটিংহামের ট্রেন্ট ব্রিজে ভারতের পরীক্ষা নিতে তৈরি কিউইরা। এই মাঠের পিচকে ব্যাটিং স্বর্গ বললেও কম বলা হবে। আজ আরেকটি হাইস্কোরিং ম্যাচ হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে রণাঙ্গনের প্রধান যোদ্ধা হিসেবে ভাবা হয়েছে দুই দলের দুই অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া ও মিচেল স্যান্টনারকে।

এই ম্যাচ নিয়ে ক্রিকেট অনুরাগীদের মনে প্রশ্ন, পেশিশক্তি বনাম বুদ্ধিমত্তার লড়াইয়ে জিতবে কে? মিচেল স্যান্টনারকে বুদ্ধিদীপ্ত স্পিনার হিসেবেই চেনে ক্রিকেটবিশ্ব। লাইন, লেন্থ ও বোলিং গতিতে মিশ্রণ এনে বারবার ব্যাটসম্যানদের থামিয়েছেন তিনি। তবে হার্দিক পান্ডিয়া যেকোনো মুহূর্তে ম্যাচের রং বদলে দিতে পারেন। স্পিনারদের গ্যালারিতে আছড়ে ফেলতে সিদ্ধহস্ত তিনি। ম্যাচটা জমিয়ে তুলতে পান্ডিয়া-স্যান্টনার অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন বলেই ভাবা হচ্ছে।

ট্রেন্ট বোল্ট বনাম ভারতীয় টপঅর্ডার : আঙুলের চোটে তিন সপ্তাহের জন্য ছিটকে গেছেন শিখর ধাওয়ান। এই সময়ের মধ্যে বেশ কয়েকটি ম্যাচ মিস করবেন তিনি। ধাওয়ানের না থাকা ভারতীয় দলের জন্য বিশাল ধাক্কা। ধাওয়ান ছিটকে যাওয়ায় তাদের ব্যাটিংয়ের ভারসাম্যই নষ্ট হয়ে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে। চলতি বিশ্বকাপে দারুণ ফর্মে রয়েছেন কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। ধাওয়ান থাকলে বোল্টের বিষ শুরুতেই শুষে নিতে পারতেন শিখর। কিন্তু তিনি না থাকায় বোল্টের আগুন গোলা সামলাতে হবে বাকিদের। কোহালিরা কীভাবে বোল্টকে সামলান, এখন সেটাই দেখার।

 

"