অভিনব প্রতিবাদ জুনাইদ খানের

প্রকাশ : ২২ মে ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

দোরগোড়ায় বিশ্বকাপ। দল বাছাইও শেষ। এখন শুধুই অপেক্ষা ব্যাটে বল লাগার। তবে বিশ্বকাপের ১৫ জনের দলে ঠাঁই না পেয়ে এখনো প্রতিবাদ চালিয়ে যাচ্ছেন বিশ্বের নানান দেশের ক্রিকেটাররা। কেউ প্রকাশ্যে, কেউবা অপ্রকাশ্যে। এবার বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ে মুখে ‘ব্ল্যাক টেপ’ লাগিয়ে প্রতিবাদ জানালেন পাকিস্তানি পেসার জুনাইদ খান।

দলে জায়গা হলেও চূড়ান্ত তালিকায় নিজের নাম না দেখতে পেয়ে হয়তো একটু মুষড়েই পড়েছেন পাক পেসার জুনেদ খান। কারণ তারপরই টুইটারে প্রতিবাদে সামিল হন জুনেদ খান। মুখে টেপ লাগিয়ে নিঃশব্দ প্রতিবাদ জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে লিখেছেন, ‘আমি কিছু বলতে চাই না। সত্যিটা খুব তেতো!’

গত মাসে ঘোষিত প্রাথমিক দলে জুনাইদকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সোমবার যখন চূড়ান্ত লিস্ট বেরোলো, সেখানে নিজের নাম না দেখে একটু মুষড়েই পড়েছিলেন ২৯ বছর বয়সি এই পেসার। আর তারপরেই প্রতিবাদ মুখর হয়েছেন। প্রতিবাদের অস্ত্র হিসেবে টুইটারকে বেছে নেন জুনাইদ। মুখে কালো টেপ লাগানো ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমি কিছুই বলতে চাই না। কারণ, সত্যিটা আসলে খুব তেতো!’

অবশ্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) তরফ থেকে নোটিশ পেয়ে টুইটার পোস্টটি সরিয়ে নিয়েছেন জুনাইদ। পিসিবির একটি সূত্র জানিয়েছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারের ক্ষেত্রে খেলোয়াড়রা সম্পূর্ণ স্বাধীন। তবে তাদের এটাও বলা হয়েছে, এমন কিছু পোস্ট করা যাবে না যা খেলার স্পিরিটের পরিপন্থী।

২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে পাকিস্তানের শিরোপা জয়ের চাবিকাঠি ছিলেন এই জুনাইদ। চার ম্যাচে ১৯.৩৭ গড়ে আটটি উইকেট শিকার করেছিলেন এই ফাস্ট বোলার। ইকোনমি রেট ছিল বাহবা পাওয়া দাবিদার, ৪.৫৮। সেই বাঁ-হাতি বোলার জুনাইদ খান দল থেকে বাদ পড়ায় বেজায় চটেছেন পাকিস্তানের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

"