অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে বিশ্বকাপের সম্প্রচার

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

প্রযুক্তির দিক দিয়ে এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপের সম্প্রচার ছাড়িয়ে যাবে আগের সব আসরকে। প্রথমবারের মতো ব্যবহার করা হবে ৩৬০ ডিগ্রি রিপ্লে। ক্যামেরায়ও এসেছে ভিন্নতা। ঘোষণা হয়ে গেছে ধারাভাষ্যকারের নাম। এদিকে বিশ্বকাপের সঙ্গে সমর্থকদের আরো সম্পৃক্ত করতে নিত্যনতুন সব ইভেন্ট খুলছে ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্লাবগুলো।

মাঠে খেলা গড়ানোর আগেই শুরু হয়ে গেছে বিশ্বকাপের রোমাঞ্চ। আয়েশি এককাপ চায়ের পেয়ালায় চুমু দিতে দিতে তৈরি তো আপনি? আপনার কথা চিন্তা করেই এবারের বিশ্বকাপের সম্প্রচারে থাকছে নতুনত্ব।

আইসিসি বলছে, অন্য সবার চেয়ে এবার আলাদা হবে টেলিভিশনে বিশ্বকাপ দেখার অভিজ্ঞতা। মাঠে থাকবে ৩২টি ক্যামেরা, যার মধ্যে ৮টি-ই আল্ট্রা মোশন হক আই ক্যামেরা। স্পাইডারক্যাম, রিভার্স ভিউ আর ফ্রন্ট স্ট্যাম্প ক্যামেরায়ও থাকছে আধুনিক সব প্রযুক্তির সমাহার।

এবারই প্রথম বিশ্বকাপে দেখানো হবে ৩৬০ ডিগ্রি রিপ্লে। থাকবে প্লেয়ার ট্র্যাকিং, বোগিক্যাম, ড্রোনক্যাম। আর নিত্যনতুন সব তথ্য দিয়ে সহায়তা করবে অ্যানালাইটিকস অ্যাপ ক্রিকভিজ।

এদিকে ঘোষণা হয়ে গেছে আইসিসি বিশ্বকাপের ধারাভাষ্যকারের নামও। ২৪ জনের তালিকায় একমাত্র বাংলাদেশি প্রতিনিধি হিসেবে আছেন আতহার আলী খান। তবে এবার থাকছেন না সুনিল গাভাস্কার ও ড্যানি মরিসন। অভিষেক হচ্ছে মাইকেল ক্লার্ক, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম আর কুমারা সাঙ্গাকারার। আছেন পোলক, হার্শা ভোগলে, সৌরভ, ওয়াসিম, নাসের হুসাইন ও গ্রায়েম স্মিথরা।

বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষ হিসেবে টাইগাররা দারুণ সমীহ জাগানিয়া দল, মানছেন ইংলিশ দলপতি ইয়ন মরগান। তার মতে, ভারত আর ইংল্যান্ড হচ্ছে আসরের টপ ফেভারিট।

এদিকে জুনের ৭ থেকে ৯ তারিখ পর্যন্ত ফ্যানদের জন্য ফ্যামিলি ডে ঘোষণা করেছে ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্লাবগুলো। যেখানে এই তিন দিন সমর্থকরা তাদের পরিবার নিয়ে ক্লাবগুলোর আউটারে ম্যাচ দেখা ছাড়াও অংশ নিতে পারবেন ক্রিকেটকেন্দ্রিক বিভিন্ন ফান গেমে। আর তাদের সঙ্গে থাকবেন ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটাররা।

 

"