আকাশের আর্তনাদে পাল্টে গেল সমীকরণ

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

শিরোপার লড়াইয়ে বেরসিক বৃষ্টি যে গ-গোল সৃষ্টি করবে, সেটার আভাস আগেই দিয়ে রেখেছিল ডাবলিন আবহাওয়া অধিদফতর। পূর্বাভাস অনুযায়ী কয়েক দফা কেঁদে উঠেছে আকাশ। তাতে ক্যারিবীয় ইনিংসের ২৬ ওভার চলে গেছে ‘প্রকৃতির পেটে’। প্রথম দফায় অল্প কিছুক্ষণের জন্য থামলেও ২২ গজের ওপর থেকে কাভার সরিয়ে নেওয়ার আগেই আরো বেগবান হয়ে ফিরে এসেছে বৃষ্টি।

তবে এ প্রতিবেদন লিখতে গিয়েই চলে এসেছে ‘দুঃসংবাদ’। পুরোপুরি থেমেছে বৃষ্টি। ক্রিকেটের চিরশত্রুর বিদায়কে আজীবন সুসংবাদ লেখা হয়ে থাকলেও কালকের ফাইনালে বাংলাদেশের বেহাল পরিস্থিতি দুঃসংবাদ লিখতে বাধ্য করল। কারণ, বৃষ্টি থামায় ম্যাচ অফিশিয়ালদের নিতে হয়েছে ডাকওয়ার্থ-লুইস-স্টার্ন (ডিএলএস) পদ্ধতির আশ্রয়। আর তাতে ২৪ ওভারে বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়াতে পারে অন্তত ২৪০ রান!

শুক্রবার ডাবলিনের মালাহাইডে টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান টাইগার কাপ্তান মাশরাফি বিন মর্তুজা। তবে তার সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমাণিত করেন দুই ক্যারিবীয় ওপেনার শাই হোপ ও সুনিল অ্যামব্রিস। বৃষ্টি নামার আগে মাঠের চারপাশজুড়ে রানের বৃষ্টি বইয়ে দেন দুজন। দ্রুতগতিতে তুলে নেন অর্ধশত। বৃষ্টি নামার আগে ২০.১ ওভারে উইন্ডিজের রান সংগ্রহ ছিল বিনা উইকেটে ১৩১ রান।

২১তম ওভারের প্রথম বলে মেহেদী হাসান মিরাজের ডেলিভারিতে ছক্কা হাঁকান শাই হোপ। এরপরই বৃষ্টি নামলে বন্ধ হয়ে যায় খেলা।

দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর থামে বৃষ্টি। বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১০টায় ফের বল মাঠে গড়ায়। তাতে বাংলাদেশের ‘মজুদ’ ২৪ ওভার ও ১০ উইকেটে লক্ষ্য দাঁড়ানোর কথা কমপক্ষে ২৪০ রান। ক্যারিবীয়রা যদি আগে থেকেই জানত খেলাটা হবে ২৪ ওভারের, তা হলে শুরু থেকেই পিটিয়ে খেলত তারা। এ কারণেই মূলত ডাকওয়ার্থ-লুইস-স্টার্ন পদ্ধতিতে টাইগারদের সামনে এনে দাঁড় করিয়েছে বড় লক্ষ্য। অধরা শিরোপার খোঁজে খেলতে নামা ম্যাচে নিজেদের খেলা সবশেষ ম্যাচের একাদশ থেকে চার পরিবর্তন নিয়ে ফাইনালে নেমেছে টাইগাররা। সাইড স্ট্রেনের জন্য দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য সাকিব আল হাসানকে ছাড়াই মাঠে নামতে হয় বাংলাদেশকে।

শিরোপা জয়ের মিশনে বাংলাদেশ একাদশে ফিরেছেন সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মুস্তাফিজুর রহমান। তাদের জায়গা করে দিতে একাদশের বাইরে চলে গেছেন লিটন দাস, আবু জায়েদ রাহি ও রুবেল হোসেন।

 

"