সাব্বির-মিঠুন-সাইফউদ্দিনের ব্যাটে রান

মোসাদ্দেকের নৈপুণ্যে আবাহনীর জয়

প্রকাশ | ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

অলরাউন্ডার বিবেচনায় বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাওয়ার এক দিন পরই ব্যাটে-বলে দাপট দেখালেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। খেলেন ৫৪ রানের অপরাজিত ইনিংস। পরে বল হাতে তুলে নেন তিন উইকেট। আর তাতে মোহামেডানকে ৪৫ রানে হারিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে শিরোপার আশা বাঁচিয়ে রাখল আবাহনী।

সাভারের বিকেএসপিতে আবাহনীর দেওয়া ৩০৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে রকিবুল হাসান ও মোহাম্মদ আশরাফুলের দারুণ প্রতিরোধের পর মোহামেডান গুটিয়ে যায় ২৫৯ রানে।

মাত্র চার রানের জন্য সেঞ্চুরি পাননি রকিবুল। এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান মাত্র ৭৯ বলে ৯৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে আউট হন মাশরাফির বলে। ৬৮ রানের ইনিংস খেলে সৌম্য সরকারের বলে আশরাফুল সাজঘরে ফিরলে ভেঙে যায় প্রতিরোধ।

রকিবুল ও আশরাফুল পঞ্চম উইকেট জুটিতে ১২৮ রান যোগ করলে জয়ের স্বপ্ন দেখে মোহামেডান। সোহাগ গাজী ২৮ বলে করেন ২৮ রান। এ ডানহাতির বিদায়ের পর শেষে দ্রুত উইকেট হারালে ২১ বল আগেই অলআউট হয় সাদা-কালো শিবির।

এ ম্যাচেই লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে নিজের ৪০০তম শিকারের দেখা পান মাশরাফি বিন মর্তুজা। পরে নেন আরো দুই উইকেট। ৮ ওভারে ৩৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন আবাহনী অধিনায়ক মোসাদ্দেক। সৌম্য দুটি, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও নাজমুল ইসলাম অপু নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

দিনের অন্য ম্যাচে ফতুল্লায় কাল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের কাছে ৪ উইকেটে হেরে গেছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। ফলে রূপগঞ্জের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমে এসেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর। ১৩ ম্যাচে রূপগঞ্জের পয়েন্ট ২২ আর আবাহনীর ২০।

এদিকে মিরপুরে প্রাইম ব্যাংককে ৭ উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের তিনে উঠে এসেছে প্রাইম দোলেশ্বর। তাদের পয়েন্ট ১৮। এই তিনটি দলের মধ্যে মূলত হতে যাচ্ছে শিরোপার লড়াই। প্রত্যেকের সামনে রয়েছে তিনটি করে ম্যাচ।

সুপার লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে নামার আগে রূপগঞ্জের সঙ্গে আবাহনীর পয়েন্ট ব্যবধান ছিল ৪। কিন্তু এ ম্যাচের পর কমে এলো ব্যবধান। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে সাব্বির রহমান (৬৪), মোসাদ্দেক (৫৪) ও মোহাম্মদ মিঠুনের (৫৬) ফিফটিতে ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০৪ রান তোলে আবাহনী। সাইফউদ্দিন ৪১ ও নাজুমল হোসেন শান্ত করেন ৩৬ রান।

তিনটি উইকেট নেন মোহামেডানের পেসার শফিউল ইসলাম। দুটি উইকেট নেন রাহাতুল ফেরদৌস। সোহাগ গাজী নেন অপর উইকেটটি।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর

আবাহনী : ৫০ ওভার ৩০৪/৭ (জহুরুল ৪, সৌম্য ১৭, সাব্বির ৬৪, জাফর ১৯, শান্ত ৩৬, মিঠুন ৫৬, মোসাদ্দেক ৫৪*, সাইফ ৪১; শফিউল ৩/৬৩, অনিক ০/৬০, সাকলাইন ০/৩৮, রাহাতুল ২/৪১, সোহাগ ১/৫৯, আশরাফুল ০/৪২)।

মোহামেডান : ৪৬.৩ ওভার ২৫৯ (মজিদ ০, ইরফান ৮, অভিষেক ৪, রকিবুল ৯৬, তুষার ১৬, আশরাফুল ৬৮, সোহাগ ২৮, রাহাতুল ৯, শফিউল ৩*,অনিক ৮, সাকলাইন ৫; মোসাদ্দেক ৩/৩৬, মাশরাফি ৩/৪০, অপু ১/৩৬, সাইফ ১/৪৬, সানজামুল ০/৩৬, সৌম্য ২/৪০, সাব্বির ০/২১)।

ফল : আবাহনী লিমিটেড

৪৫ রানে জয়ী

ম্যাচসেরা : মোসাদ্দেক হোসেন

 

"