উয়েফা ইউরোপা লিগ

শেষ আটে চেলসি-আর্সেনালের জয়

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

উয়েফা ইউরোপা লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জয় তুলে নিয়েছে ইংলিশ দুই ক্লাব আর্সেনাল ও চেলসি। পরশু রাতে ঘরের মাঠে বিগ ম্যাচে নাপোলিকে ২-০ গোলে হারিয়েছে আর্সেনাল। অন্য ম্যাচে সøাভিয়া প্রাগের মাঠ থেকে (১-০) ব্যবধানে জিতেছে চেলসি।

এই জয়ে সেমিফাইনালের পথে এক ধাপ এগিয়ে গেল পশ্চিম লন্ডনের ক্লাবটি। আগামী বৃহস্পতিবার ঘরের মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ফিরতি লেগে সøাভিয়া প্রাগকে বিদায় করাটা চেলসির পক্ষে কঠিন হওয়ার কথা নয়। একই রাতে শেষ আটের দ্বিতীয় লেগে নাপোলির মাঠে বড় হার এড়ালেই চলবে উত্তর লন্ডনের ক্লাব আর্সেনালের।

শেষ আটের অন্য দুই ম্যাচে জিতেছে বেনফিকা ও ভ্যালেন্সিয়া। ফ্রাঙ্কফুর্টকে ৪-২ গোলে হারিয়েছে বেনফিকা। আর ভিয়ারিয়ালের মাঠে ৩-১ গোলে জিতেছে ভ্যালেন্সিয়া। প্রাগে সাতটি বদল আনলেও শক্তিশালী দল নামান মাউরিসিও সারি। তবে ওয়েস্ট হামের বিপক্ষে জোড়া গোল করা এডেন হ্যাজার্ডকে বেঞ্চে বসিয়ে রাখেন চেলসি।

প্রথম ৪৫ মিনিটে চেক লিগের শীর্ষ দলের বিপক্ষে সুযোগ তৈরির জন্য বেশ কষ্ট করতে হয়েছে চেলসিকে। তাতে প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য। বিরতির পর দুই দলই গোলের জন্য মরিয়া ছিল। ৭০ মিনিটে প্রাগের ইব্রাহিমা ট্রাওরে কঠিন পরীক্ষা নেন কেপা আরিজাবালাগা, ব্লু গোলরক্ষক তার শট প্রতিহত করেন। কয়েক মিনিট পর চেলসির একটি গোল অফসাইডে বাতিল হয়। শেষ পর্যন্ত তারা জয় পায় ৮৬ মিনিটের গোলে। উইলিয়ানের বাঁকানো ক্রস থেকে দুর্দান্ত হেডে গোলটি করেন মার্কোস অ্যালোনসো। শুরুতেই রামজি এগিয়ে দেন আর্সেনালকে অ্যাওয়ে গোলে এগিয়ে থেকে আগামী ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় লেগে চেক প্রতিপক্ষকে স্বাগত জানাবে চেলসি।

নাপোলির বিপক্ষে আর্সেনালকে এগিয়ে দেন অ্যারন রামজি। এরপর কালিদো কোলিবালির আত্মঘাতী গোলে স্বস্তির জয় পায় গানাররা। ১৪ মিনিটে বল নিয়ে ডান দিকে সরে ঠা-া মাথায় নাপোলি গোলরক্ষক অ্যালেক্স মেরেটকে পরাস্ত করেন রামজি। ১০ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে আর্সেনাল। নাপোলির মাঝমাঠ থেকে পায়ে বল পান লুকাস তোরেইরা। তার বাঁ-পায়ের জোরালো শট কোলিবালির গায়ে লেগে আত্মঘাতী গোল হয়। দ্বিতীয়ার্ধে আরো গোল পেতে পারত আর্সেনাল। কিন্তু মেরেটের দুর্দান্ত সব সেভে আলেক্সান্দ্রে ল্যাকাজেত্তে ও পিয়েরে এমেরিক অবেমেয়াং সফল হননি।

 

ফলাফল

আর্সেনাল ২-০ নাপোলি

স্লাভিয়া প্রাগ ০-১ চেলসি

বেনফিকা ৪-২ ফ্রাঙ্কফুর্ট

ভিয়ারিয়াল ১-৩ ভ্যালেন্সিয়া

 

"