সোহেলকে ফিঞ্চের জবাব

এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশ : ২৪ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

২৬টি ওয়ানডে খেলেছেনকিন্তু সেঞ্চুরি পাননি হ্যারিস সোহেল। পরের ম্যাচে এসেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে তার। কিন্তু সেঞ্চুরি করেও পাকিস্তানকে জেতাতে পারেননি তিনি। বৃথাই গেছে তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটা। পরশু রাতে শারজাহতে পাক বাহিনীকে ৮ উইকেটে হারিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে এগিয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া। সোহেলকে সেঞ্চুরির জবাবটা সেঞ্চুরিতেই দিয়েছেন অ্যারন ফিঞ্চ। এদিন শতক তুলে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কও। আর কিছু রান লক্ষ্যমাত্রা হিসেবে পেলে হয়তো তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে পারতেন শন মার্শও। আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ৫ উইকেটে ২৮০ রানের শক্তিশালী সংগ্রহ তোলে পাকিস্তান। জবাব দিতে নেমে ২ উইকেট হারিয়ে ৬ বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় অস্ট্রেলিয়া। আগামী রোববার একই ভেন্যুতে দ্বিতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে।

পাকিস্তানের শুরুটা ভালো হয়নি। শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে ওঠে উমর আকমলের সঙ্গে ৯৮ রানের জুটিতে দলকে টানেন হ্যারিস। ৩ ছক্কায় ৫০ বলে ৪৮ রান করা আকমলকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন নাথান কল্টার-নিলে। ১১৫ বলে ৬টি চার ও ১টি ছক্কায় ১০১ রানে অপরাজিত থাকেন সোহেল। ওয়াসিম ১৩ বলে করেন অপরাজিত ২৮ রান।

চ্যালেঞ্জিং রান তাড়ায় ৬৩ রানে প্রথম উইকেট বিচ্ছিন্ন হয় অস্ট্রেলিয়ার। জুটি ভাঙে ২৪ রানে উসমান খাজা বিদায় নিলে। হ্যান্ডসকম্ব অজেয় ছিলেন ৩০ রানে। শন মার্শ ৯১ রানে অজেয় ছিলেন। দ্বিতীয় উইকেটে মার্শের সঙ্গে ১৭২ রানের জুটিতে দলের জয়ের পথটা সহজ করে দেন ফিঞ্চ। নিজের জোনে বল পেলেই বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে তুলে নেন দ্বাদশ সেঞ্চুরি। ১৩৫ বলে ৮টি চার ও ৪টি ছক্কায় ১১৬ রান করা ডানহাতি এই ওপেনারকে ফিরিয়ে নিজের প্রথম ওয়ানডে উইকেট নেন আব্বাস। পিটার হ্যান্ডসকম্বকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন মার্শ। ৯১ রানে অপরাজিত থেকে যান এই টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান। তার ১০২ বলের ইনিংস সাজানো ৪টি চার ও ২টি ছক্কায়। ২টি চারে ৩০ রানে অপরাজিত থাকেন হ্যান্ডসকম্ব। ১১৬ রানের অধিনায়কোচিত ইনিংসের জন্য ম্যাচ সেরা হয়েছেন ফিঞ্চ।

 

"