বার্সেলোনা-মেসির রেকর্ডের রাত

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

দৃশ্যটা বেশ পরিচিত হয়ে ওঠেছে চলতি মৌসুমের লা লিগায়। শুরুতে পিছিয়ে পড়ছে বার্সেলোনা। সেখান থেকে একক নৈপুণ্যে কাতালানদের দুর্দান্ত জয় এনে দিচ্ছেন লিওনেল মেসি। পরশুও সেই চিত্রের পুনরাবৃত্তি হলো। পিছিয়ে পড়া বার্সাকে উদ্ধার করলেন মেসি। আর্জেন্টাইন ফরওয়ার্ড গোল করেছেন, সতীর্থদের দিয়েও করিয়েছেন আরেক গোল। ৩১ বয়সি তারকার দ্যুতিতে ঘরের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে রায়ো ভায়েকানোর বিপক্ষে ৩-১ গোলের জয় পেয়েছে গত আসরের চ্যাম্পিয়নরা। এই জয়ে একটি রেকর্ডও গড়ল কাতালানরা। স্পেনের শীর্ষ লিগে কোনো এক দলের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসে টানা সর্বোচ্চ ১৩ জয়ের রেকর্ড করেছে বার্সেলোনা।

২৪ মিনিটে ন্যু-ক্যাম্পকে চুপ করে দেয় ভায়েকানোর ডে থমাস গোমেজ। ৩৮ মিনিটে ডান দিক থেকে মেসির বাঁকানো এক ফ্রি-কিকে ফাঁকায় বল পেয়ে নিখুঁত হেডে গোলরক্ষককে পরাস্ত করে বার্সাকে সমতায় ফেরান জেরার্ড পিকে। ৫১ মিনিটে মেসির সফল স্পট কিকে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। পর্তুগিজ ডিফেন্ডার নেলসন সেমেদো ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ৮২ মিনিটে ভায়েকানোর জালে শেষ বলটি জড়িয়ে দেন লুইস সুয়ারেজ।

লিগে উরুগুইয়ান ফরওয়ার্ডের এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭তম গোল। ওপরের নামটি মেসির। ২৬ গোল নিয়ে শীর্ষে এলএমটেন। আসরে সতীর্থদের সর্বোচ্চ ১২টি গোলও করিয়েছেন মেসি। এছাড়া পরশু বার্সার জার্সিতে লিগে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার তালিকায় আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাকে (৪৪২) ছাড়িয়ে গেলেন তিনি। ৪৪৩ ম্যাচ খেলা তারকা এই ফরওয়ার্ডের সামনে আছেন কেবল জাভি (৫০৫)।

তবে এমন জয়ে শিরোপার কাছাকাছি চলে এলেও স্বস্তিতে নেই বার্সা কোচ এরনেস্তো ভালভার্দে। ১৪ মার্চ চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ন্যু-ক্যাম্পে লিঁওকে স্বাগত জানাবে তারা। প্রথম লেগে গোল শূন্য ড্র করায় শেষ আটে ফরাসি ক্লাবটির বিপক্ষে জিততেই হবে বার্সার। কিন্তু এমন একটি কঠিন সময়ে ফর্মহীনতায় ভুগছে দলের মাঝ মাঠের তারকা ফিলিপ্পে কুহিনহো। অক্টোবরের পর ২৬ বছর বয়সি ব্রাজিলিয়ান গোল পেয়েছেন মাত্র ৩টি। ১৬ কোটি ইউরোতে বার্সায় আসা কুতিনহোর থেকে যে একটু বেশি প্রত্যাশা করেন ন্যু-ক্যাম্পের দর্শক।

পিকে অবশ্য আশার কথায় জানিয়েছেন। কুতিনহো দ্রুত ছন্দে ফিরবে বলে মনে করেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার, ‘ফিলিপ্পে ভালো একটা মৌসুম কাটাচ্ছে। অবশ্যই তার দাম খুব বেশি ছিল। তাই তার পারফরম্যান্সের ওপর প্রত্যাশা আরো বেশি। আর আমি নিশ্চিত যে সে তার সেরা ছন্দে ফিরবে।’

এই জয়ে ২৭ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে সিংহাসনটা ধরে রেখেছে বার্সা। লেগানেসের বিপক্ষে এক গোলের জয়ে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান দখলে রেখেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে রিয়াল মাদ্রিদ। চারে থাকা গেটাফের পয়েন্ট ৪৫।

 

ফলাফল

বার্সেলোনা ৩-১ ভায়েকানো

অ্যাট. মাদ্রিদ ১-০ লেগানেস

 

"