টটেনহামের হোঁচট, ম্যানসিটির সহজ জয়

বার্নলিকে পোড়াল লিভারপুল

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মৌসুমের শেষ সময় যত গড়িয়ে আসছে ততই যেন ভয়ংকর হয়ে ওঠছে ম্যানচেস্টার সিটি। গত সপ্তাহে লিভারপুলের চেয়ে ১ পয়েন্টে এগিয়ে থেকে শীর্ষস্থানটা পুনরুদ্ধার করেছিল সিটিজেনরা। পরশু ঘরের মাঠ ইতিহাদে রহিম স্টার্লিংয়ের হ্যাটট্রিকে তারা ৩-০ গোলে গুঁড়িয়ে দিল ওয়াটফোর্ডকে। দুর্দান্ত এই জয়ে অল রেডদের চেয়ে ৪ পয়েন্ট এগিয়ে গিয়েছিল তারা। তবে কাল ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে বার্নলিকে ৪-২ গোলে পুড়িয়ে ব্যবধানটা পুনরায় একে নিয়ে এসেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

৬ মিনিটে এগিয়ে যায় বার্নলি। ১৯ মিনিটে লিভারপুলকে সমতায় ফেরান রবার্তো ফিরমিনো। ব্রাজিলিয়ান ফরওয়ার্ড দ্বিতীয় গোলটি করেছেন ৬৭ মিনিটে। তার আগে ২৯ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান সাদিও মানে। সেনেগালিজ ফরওয়ার্ড জোড়া গোল পূর্ণ করেন যোগ করা সময়ে।

কিন্তু এমন অনবদ্য জয়েও নির্ভার হতে পারছেন না পেপ গার্দিওলা। সিটি কোচের ভয় বাকি ম্যাচগুলো নিয়ে। প্রিমিয়ার লিগ মৌসুমের শেষ আট ম্যাচে তাদের লড়তে হবে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহামের মতো শক্তিশালী প্রতিপক্ষের সঙ্গে। তাতে যদি পয়েন্ট হারান তবে শিরোপা ধরে রাখাটা কঠিন হয়ে পড়বে গার্দিওলার। সেই ভয় যেন জয়ের আনন্দ কেড়ে নিল সিটি কোচের। ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সেই আশঙ্কার কথায় জানালেন স্প্যানিশ কোচ, ‘এটা প্রায় অসম্ভব ব্যাপার যেকোনো পয়েন্ট না হারিয়ে আমরা প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যেতে পারব।’

অথচ চলতি মৌসুমে সবাই ধরে নিয়েছিল, দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলা লিভারপুলই শিরোপা জিতবে। কিন্তু ইয়ুর্গেন ক্লপের দল হুট করে ছন্দ হারিয়ে ফেলায় উন্মুক্ত হয়ে যায় শিরোপা লড়াই। গত মৌসুমে রেকর্ড ১০০ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়া সিটিজেনরাও দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরে আসে। সিটি-লিভারপুল লড়াইয়ে টিকে থাকলেও প্রিমিয়ার লিগে ধারাবাহিক ব্যর্থতায় শিরোপা দৌড়ে পিছিয়ে পড়েছে টটেনহাম।

স্পার্সরা পয়েন্ট হারাল টানা তিন ম্যাচে। তার মধ্যে আর্সেনালের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করলেও বাকি দুই ম্যাচে বিসর্জন দিয়েছে মূল্যবান ৩ পয়েন্ট। পরশু কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনোর দল সাউদ্যাম্পটনের মাঠে হেরেছে ২-১ ব্যবধানে।

দিন কয়েক আগে স্পার্সরা বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে বিদায় করে দিয়ে আট বছর পর চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে ওঠেছে। সেই আনন্দ তরতাজা থাকতে সাউদ্যাম্পটনের মাঠে নেমেছিল তারা। ২৬ মিনিটে হ্যারি কেনের এগিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু বিধি বাম। ৭৬ ও ৮১ মিনিটে দুই ধাক্কায় পাল ছিড়ে যায় টটেনহামের।

এমন অঘটনের শিকার হওয়া সত্ত্বেও ৩০ ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানটা ধরে রেখেছে পচেত্তিনোর দল। তাদের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে ও ৩ পয়েন্ট কমে চারে ম্যানইউ। ৭৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে লিভারপুল। ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ম্যানসিটি।

 

ফলাফল

লিভারপুল ৪-২ বার্নলি

ম্যানসিটি ৩-১ ওয়াটফোর্ড

সাউদ্যাম্পটন ২-১ টটেনহাম

 

"