আগুয়েরোর হ্যাটট্রিক

ফের শীর্ষে ফিরল সিটি

প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

বাংলায় একটা প্রবাদবাক্য আছে। ‘কারো পৌষ মাস, কারো সর্বনাশ।’ সর্বনাশই তো ঘটেছে চেলসির সঙ্গে। ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে ৬-০ গোলে যে হারবে, তা কি স্বপ্নেও ভেবেছিল ব্লুজরা? অথচ ডিসেম্বরে স্টামফোর্ড ব্রিজের ম্যাচে কি দুর্দান্ত জয়-ই না পেয়েছিল কোচ মাউরিসিও সারির দল। কিন্তু পরশুর ম্যাচটা ভুলে যেতে পারলেই যেন বাঁচে চেলসি। কবি জীবনানন্দ দাশের ভাষায় বলতে হয়, ‘কে হায় হৃদয় খুঁড়ে বেদনা জাগাতে ভালোবাসে?’

তবে বেদনাকে সঙ্গী করেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে ব্লুজদের। ১৯৯১ সালের পর এই প্রথম সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারল চেলসি। নটিংহাম ফরেস্টের বিপক্ষে এপ্রিলের ম্যাচটিতে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল তারা। তারপর ২৮ বছর পর পরশু। অথচ ঘরের মাঠে হাডার্সফিল্ডকে গুঁড়িয়ে চমৎকার অনুভূতি নিয়ে ইতিহাদে পা রেখেছিল কোচ সারি। কিন্তু ম্যাচ শেষে একরাশ হতাশা নিয়েই ইতালিয়ান কোচকে বলতে হলো, ‘এই সপ্তাহে আমার অনুভূতি ছিল চমৎকার। অনুশীলন, টেকনিক্যাল মিটিং ও ওয়ার্মআপেও চমৎকার সময় কাটিয়েছি আমরা।’

তারপরের গল্পটা তো এতক্ষণে জানা হয়ে গেছে। সারির সুখের অনুভূতিকে মাটি করে দিয়েছেন একজনই। সার্জিও আগুয়েরো। এক ম্যাচের ব্যবধানেই দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক করে বসেছেন আর্জেন্টাইন ফরওয়ার্ড। গত সপ্তাহে আর্সেনালের বিপক্ষে হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছিলেন। সেই ফর্ম পরশু টেনে নিয়ে এলেন চেলসির সঙ্গে প্রতিশোধের ম্যাচে। ১৩, ১৯ মিনিটের পর ৫৬ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করা গোলটি করলেন পেনাল্টি থেকে। সিটির গোলমুখটা অবশ্য খুলে দিয়েছিলেন রহীম স্টার্লিং। চতুর্থ মিনিটে সিটিকে এগিয়ে দেওয়া ফরওয়ার্ড দ্বিতীয় গোলটি করেছেন ৮০ মিনিটে। বাকি গোলটি করেছেন গুন্দোগান।

এই হ্যাটট্রিকে একটি মাইলফলকেও ভাগ বসিয়েছেন কুন। প্রিমিয়ার লিগে ১১টি হ্যাটট্রিক করে ইংলিশ কিংবদন্তি অ্যালেন শিয়েরারের সঙ্গে সিংহাসনটা ভাগাভাগি করছেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, চলতি মৌসুমে ১৭ গোল করে প্রিমিয়ার লিগে শীর্ষ গোলদাতাদের দ্বিতীয় স্থান দখল করেছেন আগুয়েরো। সমান গোল নিয়ে মোহাম্মদ সালাহ শীর্ষে আছেন অ্যাসিস্টের জন্য।

এ তো গেল আগুয়েরো বনাম সালাহর কথা। মৌসুমের শুরু থেকে লিভারপুলের সঙ্গে শীর্ষস্থানের লড়াইয়ে ইঁদুর-বিড়াল দৌড়ে থাকা সিটি এক দিনের ব্যবধানে আবার সিংহাসন দখল করে নিয়েছে। অবশ্য সিটিজেনরা অলরেডদের চেয়ে ম্যাচ বেশি খেলেছে একটি। ২৭ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ম্যানসিটি। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় স্থানে লিভারপুল। আর ‘কপালপুড়া’ চেলসি ৫০ পয়েন্ট নিয়ে এক ধাক্কায় নেমে গেছে ষষ্ঠ স্থানে। অথচ মৌসুম শুরুর কয়েক মাস শীর্ষ চারেই ছিল সারির শিষ্যরা।

"