রিয়াল-বার্সার দুই রকম রাত

প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

নতুন বছরের শুরুতে হোঁচট খেয়ে শুরু হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদের। রেকর্ড টানা ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে বিরতিতে যাওয়া লস ব্লাঙ্কোসরা ফিরে এসে ২-২ ব্যবধানে ড্র করেছিল ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে। আর পরশু নিজেদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে দ্বিতীয়ার্ধে ১০ জনের দল হয়ে পড়া রিয়ালকে ২-০ গোলে হারালো রিয়াল সোসিয়েদাদ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের দুঃস্বপ্নের রাতে বিরতিতে থেকে ফিরেই গেটাফের মাঠে ১-২ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। আরেক ম্যাচে সেভিয়ার মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

স্প্যানিশ কোচ হুলেন লোপেতেগি বিদায়ের পর সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে এসেছেন কোচ সান্তিয়াগো সোলারি। সোলারির অধীনে কয়েক ম্যাচ দুর্দান্ত জয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাস দিলেও বছর শেষ না হতেই সেই পুরনো রিয়ালকেই দেখা গেল আবার। চোটে পড়া গ্যারেথ বেলকে ছাড়াই মূল একাদশ সাজান কোচ সোলারি। কিন্তু করিম বেনজেমা-লুকা মডরিচ-টনি ক্রুসরা যে মৌসুমে নিজেদের হারিয়ে খুঁজছে! ম্যাচের ৩ মিনিটে বার্নাব্যুকে স্তব্ধ করে দিয়ে পেনাল্টি থেকে এগিয়ে যায় সোসিয়েদাদ। এরপর গোল শোধের জন্য মরিয়া রিয়াল আক্রমণ শানালেও ভাঙতে পারেনি প্রতিপক্ষের দেয়াল। বিরতির পর ৬১ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়ে লুকাস ভাসকুয়েজ। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ৮৩ মিনিটে দ্বিতীয়বার এগিয়ে যায় সোসিয়েদাদ। আর এতে রিয়ালের মাঠে দীর্ঘ ১৫ বছর পর জয় পেল তারা।

রিয়ালের এমন হার স্বাভাবিক মানছেন না ব্যালন ডি’অর জয়ী মডরিচ। দলের প্রয়োজেন সবার সঙ্গে সভায় বসতে চান এই ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার, ‘আমাদের একসঙ্গে বসতে হবে, কথা বলতে হবে এবং নিজেদের সমস্যা চিহ্নিত করতে হবে।’ নতুন বছরের প্রথম ম্যাচে লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেজের গোলে গেটাফেকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছে কাতালানরা। পরশুর ম্যাচে ২০ মিনিটে বার্সাকে এগিয়ে দেন মেসি। ৩৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সুয়ারেজ। ৪৩ মিনিটে মাতার গোলে সমতায় ফেরার চেষ্টা করলেও স্বাগতিকদের কোনো সুযোগ দেয়নি কোচ এরনেস্তো ভালভার্দের দল।

পরশুর মৌসুমের ১৬তম গোল করে আরেকটি মাইলফলকের সামনে মেসি। ৪০০ গোলের মাইলফলক ছুঁতে আর্জেন্টাইন ফরওয়ার্ডের দরকার মাত্র এক গোল। এই জয়ে ১৮ ম্যাচ শেষে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগার সিংহাসন ধরে রেখেছে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে অ্যাটলেটিকো। দুই পয়েন্ট কম নিয়ে তিনে আছে সেভিয়া। রিয়াল পয়েন্ট খোয়ানোতে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে চলে গেছে পঞ্চম স্থানে। চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে আলাভেস।

 

"