আগুনের লড়াই জিতল আর্সেনাল

জয় ছাপিয়ে ক্লপ কান্ড

প্রকাশ : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

‘উত্তর লন্ডন ডার্বি’ বলে কথা। উত্তেজনার সব উপকরণই ছিল পরশু আর্সেনাল বনাম টটেনহামের ম্যাচে। ঘরের মাঠ এমিরেটস স্টেডিয়ামে গানারদের কামব্যাক, পেনাল্টি, হাতাহাতি, লাল কার্ড, গ্যালারির থেকে স্পার্স সমর্থকদের কলার খোসা নিক্ষেপ কী বাকি ছিল না! তবে চলতি মৌসুমের সেরা ম্যাচটিই খেলেছে কোচ উনাই এমেরির শিষ্যরা। টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার দিনে পিয়েরে এমেরিক অবামেয়াংয়ের জোড়া গোলে আর্সেনাল ৪-২ ব্যবধানে হারিয়েছে প্রতিবেশী ক্লাব টটেনহামকে।

আর্সেনাল কোচ এমেরিও বলেন, শক্তিশালী স্পার্সদের বিপক্ষে জয় কতটা স্পেশাল। স্নায়ুক্ষয়ী ম্যাচটিতে জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এটা খুব বড় জয়। আমরা আমাদের সমর্থকদের দেখিয়েছি এবং জয় এনে দিয়েছি কারণ টটেনহামের বিপক্ষে জয়টা আমাদের জন্য বিশেষ কিছু।’

গত মৌসুমে কিংবদন্তি কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গারের অধীনে ভরাডুবি হয়েছিলে গানারদের। আর সেই দলটাকে নিয়ে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলেছেন এমিরেটসের নতুন কোচ এমেরি। সবাইকে এক সুতোই গাঁথতে পারার মূলমন্ত্র যে শিষ্যদের দিয়ে দিয়েছেন, উন্নতির কারণ হিসেবে তাই জানালেন সাবেক পিএসজি কোচ, ‘আমাদের খেলোয়াড়রা ক্রমাগত উন্নতি করে যাচ্ছে, আমাদের এই পদ্ধতিতেই এগোতে চাই, আমাদের পথ সৃষ্টি করতে চাই।’

ম্যাচের ১০ মিনিটে অবামেয়ংয়ের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল আর্সেনাল। ৩০ মিনিটে এরিক ডায়ারের গোলে সমতায় ফেরে টটেনহাম। চার মিনিট পরই পেনাল্টি থেকে কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যদের এগিয়ে দেন অধিনায়ক হ্যারি কেন। গানাররা ঝড়টা তুলল দ্বিতীয়ার্ধে। ৫৬ মিনিটে পুনরায় আর্সেনালের ত্রাতা অবামেয়াং। ৭৪ মিনিটে আলেক্সান্দ্রে লাকাজেত্তের গোলের তিন মিনিট পরই ব্যবধানটা ৪-২ করেন লুকাস তোরেইরা। প্রিমিয়ার লিগে ২০০৭ সালের পর এই প্রথম ‘উত্তর লন্ডন ডার্বি’ জিতল আর্সেনাল।

উত্তর লন্ডন ডার্বি’র মতো আগুন ছড়িয়েছে ‘মার্সিসাইড ডার্বি’তেও। অ্যানফিল্ডের ম্যাচটিতে লিভারপুলকে প্রায় রুখে দিয়েছিল এভারটন। তবে কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের সৌভাগ্যই বলতে হবে। যোগ করা সময়ে বেলিজয়ান ফরওয়ার্ড ডিভোক ওরিগির ১-০ গোলে জয় পেয়েছে অলরেডরা।

জর্ডান পিকফোর্ড এভারটনের জালটা অক্ষত রেখেছিল নির্ধারিত সময় পর্যন্ত। কিন্তু কিন্তু ইংলিশ গোলরক্ষকের শিশুতোশ ভুলে ৯৬ মিনিটে বদলি খেলোয়াড় ওরিগির মাথা ছোঁয়া আসা বলটি কাল হলো দ্য টফিজদের জন্য। সেই গোল গোল উদযাপন করতে মাঠে ঢুকে পড়েন কোচ ক্লপ। চমকে দেওয়ার জন্য জড়িয়ে ধরেন দলের গোলরক্ষক অ্যালিসনকে। তার জন্য সমালোচনার তীর ধেয়ে এসেছে ক্লপের দিকে। অলরেড কোচ অবশ্য এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন কাল। তিনি জানান, ‘আমি ক্ষমা চাই কারণ আমি অশ্রদ্ধাভাজন হতে চাই না, কিন্তু আমি নিজেকে থামাতে পারিনি।’

এই জয়ে প্রিমিয়ার লিগে অপরাজিত থাকার অভিযানটা অক্ষুণœ রেখেছে লিভারপুল। শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির চেয়ে দুই পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে তারা। পরশু ফুলহামের বিপক্ষে জয় পাওয়া চেলসি আছে তৃতীয় স্থানে। ৩০ পয়েন্ট নিয়ে চারে উঠে এসেছে আর্সেনাল। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় পাঁচে আছে টটেনহাম।

 

ফলাফল

আর্সেনাল ৪-২ টটেনহাম

লিভারপুল ১-০ এভারটন

চেলসি ২-০ ফুলহাম

"