ইউনাইটেডের মধুর প্রতিশোধ

চলতি মৌসুমে ১৫ ম্যাচে এসে প্রথম হারের স্বাদ পেল জুভেন্টাস

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

রেফারির শেষ বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে হাত দিয়ে এক কান খাড়া করে ধরলেন হোসে মরিনহো। তুরিনের দর্শকদের কী বুঝাতে চাইলেন তা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচই ভালো বলতে পারবেন। তবে তা নিয়ে মাঠে লিওনার্দো বোনুচ্চির সঙ্গে একটা বাতচিতও হয়ে গেল স্পেশাল ওয়ানের। মরিনহোর ভঙ্গিটা যে পছন্দ হয়নি তাই জানিয়ে দিলেন জুভেন্টাস ডিফেন্ডার। সহ্য না হওয়ায় স্বাভাবিক। যে ম্যাচটি প্রায় জিতে যাচ্ছিল তুরিনের বুড়িরা সেই ম্যাচটিই আত্মঘাতী গোল হজমের সুবাদে তুলে দিতে হলো ম্যানইউকে।

অবশ্য জুভ ডিফেন্ডার লোবো সিলভা কিইবা করতে পারতেন! তার মাথায় না লাগলে বলটা স্বাগতিকদের গোলপোস্টে প্রস্তুত থাকা ম্যানইউর দুই খেলোয়াড়ের যে কারো লাগতে পারত। ৮৯ মিনিটের আত্মঘাতীয় গোলেই তুরিনে ২-১ গোলের জয় পেয়েছে রেড ডেভিলরা।

গত ম্যাচে ওল্ড ট্রাফোর্ডে পাওলো দিবালার একমাত্র গোলে জয় পেয়েছিল জুভেন্টাস। পরশুও নিজেদের মাঠে জয়টা প্রায় হাতে মুঠোয় চলে এসেছিল কোচ ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির শিষ্যদের। ৬৫ মিনিটে বোনুচ্চির মাঝ মাঠের পাস থেকে দুর্দান্ত এক গোল করে বসেন রোনালদো। চ্যাম্পিয়নস লিগের গত আসরের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন সিআর সেভেন। এবার তিন ম্যাচ শেষে জুভেন্টাসের জার্সিতে টুর্নামেন্টের প্রথম গোল পেলেন রোনালদো। তাও সাবেক ক্লাব ম্যানইউর বিপক্ষে। গোল করে নিজের জার্সি তুলে সিক্স প্যাক বানানো শরীরটাও একবার তুরিনের দর্শকদের দেখিয়ে দিলেন তিনি।

কিন্তু ব্যবধানটার ধরে রাখতে পারেনি জুভেন্টাস। বিষণœ হয়ে থাকা মরিনহোর মুখে হাসি ফিরিয়ে দেন হুয়ান মাতা। ৮৬ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে অসাধারণ এক গোল করে রেড ডেভিলদের নকআউট পর্বে যাওয়ার স্বপ্নটা বাঁচিয়ে রাখেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। তারপরই সেই জুভদের সেই আত্মঘাতী অঘটন। সেই সঙ্গে জুভেন্টাসকে চলতি মৌসুমের প্রথম হার উপহার দিল মরিনহোর শিষ্যরা। সব প্রতিযোগিতা মিলে জুভেন্টাসের ১৫ ম্যাচে এটিই প্রথম হার।

হারলেও ‘এইচ’ গ্রুপে তিন জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে আছে জুভেন্টাস। সাত পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ম্যানইউ। তাদের চেয়ে দুই পয়েন্ট কম নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে ভ্যালেন্সিয়া। চতুর্থ স্থানে থাকা ইয়ং বয়েজের পয়েন্ট এক। ২০০৯ সালের পর চ্যাম্পিয়নস লিগে এই প্রথম ঘরের মাঠে গ্রুপ পর্বে হেরেছে জুভেন্টাস। তবে কাল সামি খেদিরা-দিবালা একের পর এক গোল মিসের মহড়া না চালালে জয় পেতে পারত তারা। জুভদের দুইবার হতাশ করেছে ম্যানইউর গোলপোস্ট।

তবে হারলেও জুভদের দুশ্চিন্তার কিছু দেখছেন না রোনালদো। ম্যাচের পর তিনি বলেন, ‘চ্যাম্পিয়নস লিগে জুভেন্টাসের হয়ে গোল করতে পেরে আমি খুশি। আমরা ভালো অবস্থায় আছি। গ্রুপের শীর্ষে আছি। তাই দুশ্চিন্তার কিছুই নেই।’

এই জয়ে অবশ্য স্বস্তি ফিরেছে মরিনহোর মনে। পর্তুগিজ কোচ বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য অনেক বড় জয়। কেবল পয়েন্ট দরকার ছিল বলে নয় কারণ চমৎকার একটি দলের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচে এই জয় আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে।’

"