তবু সবার আগে বার্সেলোনা

প্রকাশ : ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল তিন সপ্তাহের নির্বাসন শেষে মাঠে ফিরছেন লিওনেল মেসি। কিন্তু বার্সেলোনা কোচ এরনেস্তো ভালভার্দে প্রিয় শিষ্যকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নেননি। অবশ্য আর্জেন্টাইন ফরওয়ার্ডকে ছাড়াই গত তিন ম্যাচে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে কাতালানরা। পরশু ইন্টার মিলানের মাঠ সানসিরোতেও ম্যালকমের গোলে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিল বার্সা। তবে নেরাজ্জুরিদের শেষ মুহূর্তে ত্রাণকর্তা হয়ে উঠেন মাউরো ইকার্দি। আর্জেন্টাইন ফরওয়ার্ডের সমতাসূচক গোলে ‘বি’ গ্রুপ থেকে নকআউট পর্বে যাওয়ার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে কোচ লুসিয়ানো স্পেলেত্তির দল। আর ড্র নিয়েই সবার আগে চ্যাম্পিয়নস লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডে পা রেখেছে বার্সেলোনা।

শেষ দেখায় ন্যু ক্যাম্পে ইন্টারের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জয় পেয়েছিল ভালভার্দের শিষ্যরা। অন্যদিকে নকআউট পর্বের স্বপ্ন জিইয়ে রাখতে হলে জয় বা ড্র ছাড়া বিকল্প ছিল না ইন্টারের। কিন্তু ৮৩ মিনিটে ফিলিপ্পে কুতিনহোর পাস থেকে চ্যাম্পিনয়স লিগে অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা ম্যালকমের গোলে স্বপ্নটা বিসর্জন দিতে বসেছিল স্বাগতিকরা। ৫ মিনিট পরই নিশ্চিত হার থেকে দলকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন ইন্টার অধিনায়ক ইকার্দি। এই নিয়ে ঘরের মাঠে বার্সা বিপক্ষে টানা চার ম্যাচ অপরাজিত থাকল ইন্টার।

‘বি’ গ্রুপ থেকে চার ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকে শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে বার্সা। ৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ইন্টার মিলান। সমান ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে টটেনহাম। ১ পয়েন্ট পাওয়ায় নেদারল্যান্ডসের ক্লাব পিএসভি আইন্দোফেনের স্বপ্নটা আগেই শেষ হয়ে গেছে। এখন ইন্টারকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে হলে পরের দুই ম্যাচে জয় পেতে হবে। জয় পেতে হবে টটেনহামকেও।

স্পার্সরা অবশ্য পরশু আরেকবার পা ফসকাতে বসেছিল। ঘরের মাঠ লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে আইন্দোফেনের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়েছিল কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা। শেষ পর্যন্ত টটেনহাম নকআউটপর্বের স্বপ্নটা বাঁচিয়ে রেখেছে অধিনায়ক হ্যারি কেনের জোড়া গোলে। ম্যাচ শুরুর মাত্র ২ মিনিটে ওয়েম্বলির সব হাসি কেড়ে নিয়েছিল পিএসভি ফরওয়ার্ড লুক ডি জং। এরপর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে উৎকণ্ঠা বাড়ছিল স্পার্স সমর্থকদের। ৭৮ মিনিটে নায়ক হয়ে উঠেন পচেত্তিনোর আশা-ভরসার প্রতীক কেন। দলকে সমতায় ফেরানোর পর ৮৯ মিনিটে জয় এনে দেন রাশিয়া বিশ্বকাপের এই গোল্ডেন বুটজয়ী ফরওয়ার্ড।

অবশেষে শেষ বাঁশি বাজার পর পরই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন কোচ পচেত্তিনো। জয়টা কত গুরুত্বপূর্ণ তাই শোনালেন তিন সংবাদ সম্মেলনে, ‘যেকোনো কিছুই ঘটতে পারত। আমাদের হাতে আরো দুই ম্যাচ আছে। আমরা বিশ্বাস করি ইন্টারকে আমরা হারাতে পারব। চেষ্টা করব বার্সেলোনার বিপক্ষে জেতার জন্য। আমরা বিশ্বাস হারাচ্ছি না।’ ‘এ’ গ্রুপে অবশ্য স্বস্তিতেই আছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। দুই দলই সমান ৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে এক পা দিয়ে রেখেছে। দুই দলই মুখোমুখি হয়েছিল পরশু। আর তাতে মধুর প্রতিশোধ নিয়েছে ডিয়েগো সিমিওনের শিষ্যরা। প্রথম লেগে বরুসিয়ার বিপক্ষে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল তারা। পরশু ডর্টমুন্ডকে সাউল ও আন্তনিও গ্রিজম্যানের গোলে ২-০ গোলে হারিয়ে শোধ তুলেছে অ্যাটলেটিকো।

"