অঘটনের শিকার লিভারপুল, ফের পিএসজি-নাপোলি ড্র

আরো কঠিন হলো মৃত্যুকূপ

সার্বিয়ান প্রথম ক্লাব হিসেবে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে জিতল রেডস্টার বেলগ্রেড

প্রকাশ : ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে ‘সি’ গ্রুপকে বলা হচ্ছিল ডেথ গ্রুপ। আর তা প্রমাণ হতে সময়ও বেশি লাগল না। এই গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়াটাই এখন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে নাপোলি, পিএসজি, লিভারপুলের। নক আউট পর্বের হিসেবে অবশ্য বাকি দল রেড স্টার বেলগ্রেডকে বাইরে রাখতে হচ্ছে। তবে পরশু সমীকরণটি কঠিন করে দিয়েছে এই সার্বিয়ান ক্লাবটিই। তাও আবার লিভারপুলের মতো ক্লাবকে নিজেদের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়ে। এক রেড স্টার ঝড়ে গ্রুপের দুই নাম্বারে নেমে গেছে অলরেডরা।

চ্যাম্পিয়নস লিগে ঘরের মাঠ ও অ্যাওয়ে ম্যাচ মিলে এখন পর্যন্ত ম্যাচ হয়েছে চারটি। তার মধ্যে ডেথ গ্রুপ খ্যাত ‘সি’ গ্রুপে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছে নাপোলি। গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় সমান পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে লিভারপুল। ৫ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে পিএসজি। তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে সবার শেষে বেলগ্রেড।

ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে বেলগ্রেডকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল লিভারপুল। পরশু নিজেদের মাঠে মিলান পাভকভের তারই প্রতিশোধ তুলেছে সার্বিয়ান ক্লাবটি। পুরো মাঠজুড়ে খেলেছে মোহাম্মদ সালাহ-সাদিও মানে-রবার্তো ফিরমিনোরা। কিন্তু প্রথমার্ধের পাভকভের ২২ ও ২৯ মিনিটে পরপর দুই আঘাত আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা।

বেলগ্রেডের বিপক্ষে এমন হার যে বরণ করতে হবে তা হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি কোচ ক্লপ। অন্য অনেকের মতো নিজেও বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। ডাগআউট থেকে সংবাদ সম্মেলনে এলেন চোখেমুখে বিষ্ময় নিয়ে। বিষ্ময়ের রাতে তিনি বলেন, ‘এমন ম্যাচ আমি কম দেখেছি এবং এটা সত্যি কঠিন ম্যাচে এমন জাদুকরীয় কিছু খুঁজে পাওয়া। আমাদের আরো দুইটি ম্যাচ আছে। আশা করি পরের ম্যাচগুলোতে এমন কিছু ঘটবে না। ছেলেরা অত্যন্ত হতাশ। হতাশ আমিও। আমাদের ভালো করা উচিত ছিল। উচিত ছিল কারণ আমরা ভালো করতে পারি।’

দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে হলে অলরেডদের বাকি দুই ম্যাচে যে নিশ্চিত জয় পেতে হবে তা বুঝিয়ে দিয়েছেন ক্লপ। কিন্তু ক্লপকে কি ছেড়ে কথা বলবে নাপোলি ও পিএসজি? এই দুই দলেরই আছে নকআউট পর্বে যাওয়ার সুযোগ। ঘরের মাঠে শক্তিশালী পিএসজিকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে কোচ কার্লো আনচেলত্তির শিষ্যরা।

মৌসুমে নাপোলির বিপক্ষে প্রথম দেখায় ঘরের মাঠ পার্ক দ্য প্রিন্সেসে শেষ মুহূর্তের নাটকীয় গোলে হার বাঁচিয়েছিল পিএসজি। পরশু অবশ্য প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে কিলিয়ান এমবাপ্পের পাস থেকে পিএসজিকে এগিয়ে দিয়েছিলেন হুয়ান বের্নাট। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে নাপোলিকে সমতায় ফেরান লরেঞ্জো ইনসাইন। ম্যাচের বাকি সময়টুকু নেইমার-কাভানি-এমবাপ্পেদের আর কোনো সুযোগ দেয়নি নাপোলি। নাপোলি গুরুত্বপূর্ণ ১ পয়েন্ট আদায় করে গ্রুপের শীর্ষে উঠায় স্বস্তিতেই আছেন কোচ আনচেলত্তি। ম্যাচের পর দলের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে তিনি বলেন, ‘এটা গুরুত্বপূর্ণ একটা পয়েন্ট। কঠিন এই গ্রুপে কেউ ভাবেনি চার ম্যাচ শেষে আমরা শীর্ষে উঠব। এটার অর্থ হচ্ছে আমরা ভালো করছি।’

"