ঘরের মাঠেও অস্ট্রেলিয়ার এমন হার!

প্রকাশ : ০৫ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সময়টা ভালো না অনেক দিন ধরেই। সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার গ্লানি নিয়ে ফিরতে হয়েছিল তাদের। ঘরের মাঠে সেই দুঃস্মৃতির ক্ষতে কিছুটা হলেও প্রলেপ দেওয়ার সুযোগ ছিল অজিদের। কিন্তু ঘরের মাঠেও বিবর্ণ তারা। কাল পার্থে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ছয় উইকেটে হেরেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। এ নিয়ে টানা হারল অস্ট্রেলিয়া। সর্বশেষ ১৫ ম্যাচে তাদের হার ১৩টিতেই। অজিদের বিপক্ষে সহজ জয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল প্রোটিয়ারা।

টসে জিতে প্রথমেই স্বাগতিকদের ব্যাটিংয়ে পাঠায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই টালমাটাল অস্ট্রেলিয়া। দুই অঙ্কে যাওয়ার আগেই তিন উইকেট হারিয়ে কঠিন চাপে পরে অজিরা। অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডারে প্রথম আঘাত হানেন ইনজুরি থেকে ফেরা ডেল স্টেইন। ত্রাবিস হেড সাজঘরে ফিরলেন মাত্র এক রানেই। পরে তার পদাঙ্ক অনুসরণ করেন ফিঞ্চ (৫) ও ডি আর্চি শট (০)।

প্রোটিয়াদের বোলিং তোপে দিশেহারা অস্ট্রেলিয়া ৮৯ রানেই হারিয়ে ফেলে সাত উইকেট। বিপর্যয়টা আর সামলে নিতে পারেনি স্বাগতিকরা। শেষ অবধি ৩৮.১ ওভারে ১৫২ রানে গুটিয়ে যায় তারা। অ্যালেক্স ক্যারি করেন ৩৩ রান। ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ৩৪ রানে আউট হন লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান নাথান কল্টার নিল।

ইনজুরি থেকে ফেরা স্টেইন দুর্দান্ত বোলিং করেন। সাত ওভারে মেডেনসহ ১৮ রান খরচায় দুই উইকেট শিকার করেন এই প্রোটিয়া পেসার। স্টেইনের মতো দুই উইকেট নিয়েছেন ইমরান তাহির, লুঙ্গি এনগিডিও। তবে প্রোটিয়াদের পক্ষে সবচেয়ে সফল বোলার অ্যান্ডিলে ফেলুখায়ো। ৩৩ রানে ৩ উইকেট নেন তিনি।

সহজ লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দারুণ সূচনা করেন দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক এবং রেজা হেনরিক্স। কিন্তু ৯৪ রানে উদ্বোধন জুটি বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরই ছন্দ হারায় প্রোটিয়ারা। জয়ের বন্দরে পৌঁছাতে চার উইকেট খোয়াতে হয় তাদের। ব্যক্তিগত ৪৭ রানে নিলের বলে সাজঘরে ফেরেন ডি কক। দলীয় ১২২ রানে সাজঘরে ফেরেন আরেক ওপেনার হেসরক্সি। ৪৪ রান করেছেন তিনি। এইডেন মার্করাম আউট হন ৩৬ রানে। পরে জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারেন ফ্যাফ ডু প্লেসি (২*) এবং ডেভিড মিলার (১০*)। দক্ষিণ আফ্রিকার পতন হওয়া চার উইকেটের তিনটি নিয়েছেন মার্কাস স্টয়নিস।

 

"