বানোয়াট তথ্যের ভিত্তিতে রোনালদোর বিরুদ্ধে অভিযোগ!

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

কী যে দুঃসময় যাচ্ছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর! একের পর এক ধর্ষণের অভিযোগে জেরবার পর্তুগিজ উইঙ্গার। ক্যাথরিন ময়োরগোর সঙ্গে আইনি মামলা চলছে তখন আরো তিন নারী ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন রোনালদোর বিরুদ্ধে। কিন্তু এই ধরনের কোনো ঘৃণ্য কাজ করেননি বলে বারবার আত্মপক্ষ সমর্থন করে আসছেন সিআর সেভেন। কিন্তু গত পরশু ঘটনার মোড় পাল্টে যায় যখন মায়ারগোর সঙ্গে রোনালদোর সমঝোতার চুক্তি জনসম্মুখে চলে আসে। যেখানে ধর্ষণের পর ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা উল্লেখ আছে। তবে চুক্তিপত্রটি ‘ভুয়া’ জানিয়েছেন রোনালদোর আইনজীবী। এক বিবৃতিতে রোনালদোর আইনজীবী পিটার ক্রিস্টিয়ানসন বলেছেন, জাল তথ্যাদির ভিত্তিতে রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তোলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক মডেল ও বর্তমানে শিক্ষিকা মায়োরগো অভিযোগ করেন, ২০০৯ সালে লাস ভেগাসের একটি নৈশক্লাবে ৩৩ বছর বয়সী রোনালদো দ্বারা তিনি ধর্ষিত হন। নতুন করে তার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে লাস ভেগাসের পুলিশ এই মামলার পুনঃতদন্ত শুরু করেছে। জার্মান সংবাদমাধ্যম ডার স্পেইগেল ও এ নিয়ে ধারাবাহিকভাবে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তবে রোনালদো এর আগে দুইবার অভিযোগটি অস্বীকার করেছেন। প্রথবার ডার স্পেইগেল যখন খবরটি প্রকাশ করে তখন ‘ভুয়া সংবাদ’ বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন তিনি। রোনালদোর প্রতিনিধি সাপ্তাহিক ম্যাগাজিনটির ব্যাপারে মামলা করারও হুমকি দেন। তবে চুক্তিপত্রটি প্রকাশ করার পর নতুন বিপাকে পড়েন রোনালদো। সমঝোতা চুক্তিটিতে লেখা আছে, ২০১০ সালে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য রোনালদো ৩,৭৫,০০০ মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ দেন মায়োরগোকে। অর্থটা পরিশোধ করা হয় এক সপ্তাহের মধ্যে। চুক্তিপত্রটিতে রোনালদোর সইও আছে। এমনকি চুক্তিপত্রটিতে মায়োরগোর সম্মতিতে ২০০৯ সালে লাস ভেগাসে ঘটনাটি ঘটেছিল বলে জানান রোনালদো।

চলমান জটিলতার প্রেক্ষিতে ক্রিস্টিয়ানসন আরো জানান, ‘একটি সংবাদমাধ্যমের দায়িত্ব জ্ঞানহীনভাবে চুরি করা ডিজিটাল তথ্যাদি নিজেদের মতো ব্যবহার করে’ এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে। মায়োরগা ২০০৯ সালে রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তোলার পর ডার স্পেইগেল তা গত বছর ছেপেছিল। তবে সেই নারীর কাছ থেকে অনুমতি না মেলায় গত বছর এ নিয়ে বেশি দূর এগোয়নি সংবাদমাধ্যমটি। কিন্তু ‘হ্যাশট্যাগ মিটু’ আন্দোলনের পর মায়োরগো নিজের পরিচয় প্রকাশের সাহস পেয়েছেন বলে দাবি করা হচ্ছে। এদিকে, ক্রিস্টিয়ানসন বিবৃতিতে বলেছেন, এই অভিযোগের ব্যাপারে তার মক্কেলের অবস্থানের কোনো নড়চড় হয়নি। আগের মতোই ‘২০০৯ সালে লাস ভেগাসে যা ঘটেছিল সেটি পুরোপুরি সম্মতিসূচক।’

 

"