ড্রয়ে খুশি ক্লপ-গার্দিওলা

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ভাগ্যকে দোষটা দিতেই পারেন পেপ গার্দিওলা। ৮৫ মিনিটে যদি রিয়াদ মাহারেজ পেনাল্টি কিকটা গোলপোস্টে না লাগাতেন তবে অ্যানফিল্ড বাধা কাটত ম্যানচেস্টার সিটির। গত দুই ম্যাচে যে লিভারপুলের মাঠে জয় দেখেনি সিটিজেনরা। তার মধ্যে গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে রেড ডেভিলদের বিপক্ষে বিধ্বস্ত হয়েছিল ম্যানসিটি। এরপর ঘরের মাঠ ইতিহাদে আরেকবার হারতে হয়েছিল তাদের।

প্রথমে পেনাল্টি কিকটি নিতে চেয়েছিলেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস। কিন্তু কোচ গার্দিওলার নির্দেশনা অনুয়ায়ী কিক নেন মাহারেজ। তবে লিভারপুলের মাঠে সিটিজেনরা গোল না পেলেও পরশু জয় হয়েছে ফুটবলেরই। এমন একটা হাইভোল্টেজ ম্যাচ দেখার জন্য উৎসুক হয়ে থাকেন ফুটবলপ্রেমীরা। আক্রমণ-প্রতিআক্রমণের বারুদে ঠাঁসা ম্যাচটিতে অবশ্য গোল দেখেনি কোনো দল। ফুটবল দেবতা হয়ত নিরাশ করতে চাননি কাউকে। করবেনই বা কেন! দুই দলই যে লড়েছে সমানে সমান।

এমনিতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আট ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানে আছে দুই দল। গত সপ্তাহেই গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় সিংহাসনটা দখল করে নিয়েছেন ম্যানসিটি। পরশু সুযোগটা মিস না হলে এগিয়ে যেতে পারত সিটিজেনরা। সঙ্গে লিভারপুল কোচ ক্লপের সঙ্গে মুখোমুখি দেখাতেও পরিসংখ্যানটা সমান করে নিতে পারতেন কোচ গার্দিওলা। এর আগে ১২ বারের সাক্ষাতে ৬ বার জিতেছেন ক্লপ। ৫ বার গার্দিওলা। অন্য ম্যাচটি হয়েছে ড্র। দুই জনের সাক্ষাৎটা শুরু ২০১৩ সালে, জার্মান বুন্দেস লিগায়। যখন গার্দিওলার কাঁধে বায়ার্ন মিউনিখের দায়িত্ব আর বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের ডাগআউটে ক্লপ।

তবে পেনাল্টি নিতে না দেওয়ায় হতাশাটা লুকাননি জেসুস। ব্রাজিলিয়ান ফরওয়ার্ড ম্যাচ শেষে অসন্তুষ্টির কথা জানালেন সংবাদ সম্মেলনে, ‘আমি পেনাল্টি কিক নিতে চেয়েছিলাম। আমি আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। কিন্তু তারা তা আমাকে নিতে না দেওয়ায় আমি খুশি হতে পারিনি।’

অন্যদিকে ‘পেনাল্টি মিস খেলারই অংশ’ বলে জানান মাহারেজ। আলজেরিয়ান মিডফিল্ডার বলেন, ‘এটা খেলারই অংশ। আপনাকে শক্তিশালী থেকেই সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। মাঝেমধ্যে আপনি গোল করবেন, মাঝেমধ্যে মিস। এটা ভালো যে, আমরা ড্র করেছি। তবে জয়টা আমাদের প্রাপ্য ছিল।’ চলতি মৌসুমে লেস্টার সিটি থেকে ইতিহাদে আসার পর তিনটা গোল করেছেন মাহারেজ। সুযোগ মিস করলেও কোচকে পাশে পাচ্ছেন মাহারেজ। গার্দিওলার সঙ্গে কথা বলেই তিনি পেনাল্টি নিয়েছিলেন। গার্দিওলাও গোল মিসকে খেলার অংশ মনে করে জানান, ‘এটা আমার পছন্দে হয়েছে। অনুশীলনের সময় মাহারেজকে সব সময় দেখি পেনাল্টি থেকে গোল করতে। যার জন্য তাকে বলেছিলাম কিক নিতে।’ সেই সঙ্গে গার্দিওলা জেসুসকে শুট নিতে না দেওয়ার জন্য অবশ্য ক্ষমা চেয়েছেন।

এদিকে, অ্যানফিল্ডে আসার সময়টা তিন বছর হয়ে গেছে কোচ ক্লপের। ২০১৫ সালে ডর্টমুন্ড ছেড়ে লিভারপুলের দায়িত্ব নিয়েছেন জার্মান কোচ।

"