ফিরেই সেঞ্চুরি হাফিজের

প্রকাশ : ০৮ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

বাংলাদেশের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়েছে এশিয়া কাপ থেকে। টুর্নামেন্টে ভারতের কাছে নিঃশর্ত আত্মসমর্পণও করতে হয়েছিল দুবার। আরব আমিরাতের টুর্নামেন্ট শেষে তোপের মুখে পরতে হয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে। ফরম্যাট ও প্রতিপক্ষ বদল হওয়ার পর দারুণভাবেই ঘুরে দাঁড়াল পাক বাহিনী। কাল দুবাইতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনেই শুভ সূচনা করেছে স্বাগতিকরা। মোহাম্মদ হাফিজ ও ইমাম-উল-হকের ২০৫ রানের জুটির ওপর দাঁড়িয়ে বড় সংগ্রহের আভাস দিয়েছে পাকিস্তান। কিন্তু শেষ বিকেল হঠাৎই পথ হারিয়ে দিন শেষে ৩ উইকেটে ২৫৫ রান হয়ে যায় তারা।

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাক আধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ব্যাট হাতে দলকে উড়ন্ত সূচনাই এনে দেন হফিজ ও ইমাম। দুই বছর টেস্ট দলের বাইরে থাকা হাফিজ ফিরেই জবাব দিয়েছেন দারুণ এক সেঞ্চুরিতে। কাল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তুলে নেন টেস্ট ক্যারিয়ারের দশম সেঞ্চুরি। এই সেঞ্চুরির জন্য হাফিজ ধন্যবাদ দিতে পারেন মিচেল মার্শকে। ৭৪ রানে লং অনে তার সহজ ক্যাচ ছেড়ে দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার। শেষ অবধি হাফিজ ফিরলেন ১২৬ রানে। ২০৮ বলের ইনিংসটি তিনি সাজান ১৫টি চারে।

তবে ক্যারিয়ারের প্রথম শতক হাতছাড়া করেছেন ইমাম। ৭৬ রানে সাজঘরে ফিরেছেন তিনি টিম পেইনের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে। তার ঘাতক নাথান লিওন। বাইশ গজ ছাড়ার আগে অবশ্য হাফিজকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের ধৈর্যশক্তির চূড়ান্ত পরীক্ষা নিয়েছিলেন ইমাম। ইমামের বিদায়ে ভাঙে দুশোর্ধ রানের জুটি। দলীয় ২২২ রানে পিটার সিডলের এলবিডাব্লিউর ফাঁদে পড়ে বিদায় নেন হাফিজ। উইকেটের লাগাম দ্রুতই টেনে ধরেন আজাহার আলি। হারিস সোহেলকে নিয়ে বাঁধের জুটি। যদিও বেশিদূর এগোতে পারেননি তিনি। ৮০ বল খেলে মাত্র ১৮ রানে জন হল্যান্ডের শিকারে হয়ে উইকেট ছেড়ে গেছেন আজহার। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে ৫৩ বলে ১৫ রানে অপরাজিত আছেন এই পাক ব্যাটসম্যান।

"