মঈন আলিকে পছন্দ করেনা অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ক্রিকেট ‘ভদ্রলোকের’ খেলা। কিন্তু মাঝে মাঝেই অশোভন উক্তি কিংবা বর্ণবাদের কারণে সৌন্দর্য হারায়। এর আগেও ক্রিকেট বিশ্ব এরূপ ঘটনার সাক্ষী হয়েছে। এবার বর্ণবাদের অভিযোগ উঠেছে অস্ট্রেলিয়ানদের বিরুদ্ধে। ২০১৫ সালের অ্যাশেজ সিরিজে বর্ণবাদের শিকার হয়েছিলেন ইংলিশ অলরাউন্ডার মঈন আলি। এ নিয়ে তদন্তে নেমেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও। ব্রিটিশ গণমাধ্যম ‘দ্য টাইমস’ ম্যাগাজিনে প্রকাশিত মঈন আলির আত্মজীবনীতে এই অভিযোগ তোলা হয়। সেখানে উল্লেখ্য করা হয়, ২০১৫ সালে অ্যাশেজ সিরিজে মঈন আলিকে ‘ওসামা’ (আল কায়দা নেতা ওসামা বিন লাদেন) বলে কটূক্তি করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়রা। তবে এতে নির্দিষ্ট কোন ক্রিকেটারের নাম উল্লেখ করেননি মঈন আলি।

মঈন আলি আত্মজীবনীতে লিখেন, ‘একজন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার আমাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ওসামাকে আউট করে দাও। প্রথমে আমি বিশ্বাস করতে পারিনি। যদিও আমি কখনো ক্রিকেট মাঠে রাগ করি না।’ এই অভিযোগের প্রসঙ্গে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এক কর্মকর্তা বলেন, ‘এই ধরনের ঘটনা গ্রহণযোগ্য নয় এবং খেলার মাঠে এর কোনো স্থান নেই। আমরা পরিষ্কার করতে চাই মূল্যবোধ এবং সুব্যবহারের। যেটা আমাদের দেশকে ভালোভাবে উপস্থাপন করবে।’ বিষয়টা গুরুত্ব সহকারে দেখছেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং সঙ্গে সঙ্গে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকেও অবগত করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ঘটনাটা ইংলিশ কোচ ট্রেভর বেইলিস জানিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান কোচ ড্যারে লেহম্যানকে। পরবর্তীতে লেহমান অজি ক্রিকেটারদের জিজ্ঞাসা করেছিলেন, ‘তোমরা কি মঈনকে ওসামা বলেছ?’ অজি ক্রিকেটাররা অভিযোগ অস্বীকার করে উত্তর দেন, ‘আমরা বলেছি, পার্টটাইমারকে আউট করে দাও।’

‘ওসামা’ এবং ‘পার্টটাইমার’ কথা শুনে অবাক হয়েছিলেন মঈন আলি। ব্রিটিশ গণমাধ্যম ‘দ্য টইমস’ পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মঈন আলি বলেন, ‘আমি অনেক দলের বিপক্ষে খেলেছি। কিন্তু একমাত্র অস্ট্রেলিয়া দলই আমাকে অপছন্দ করে।’ ইংলিশ এই অলরাউন্ডার আরো বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পুরনো শত্রুতা থাকতে পারে। তাই বলে একজন ক্রিকেটারকে অসম্মান করা ঠিক না।’

"