জয় দিয়ে শুরু করতে চায় টাইগাররা

আজ বাংলাদেশের সামনে শ্রীলঙ্কা

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

এশিয়া কাপের গত তিনটি আসরের আয়োজক ছিল বাংলদেশ। তার মধ্যে দুটিতে ফাইনাল খেলেছে টাইগাররা। খুব কাছে গিয়েও অধরা থেকে গেছে স্বপ্নের শিরোপাটি। এশিয়ান ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২ রানে হেরে যায় তামিম-সাকিবরা। ম্যাচ শেষে সাকিব আল হাসানের মুখে হাত দিয়ে সেই কান্নার সঙ্গে কেঁদেছিল বাঙালি ক্রিকেট প্রেমীরাও। ২০১৬ সালের গত আসরটা হয়েছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। এবারও বেশ ভালোভাবে এগিয়ে ছিল টাইগাররা। কিন্তু আরেকবার বাঙালিদের দুঃস্বপ্নের রাত উপহার দেয় ভারত।

ক্রিকেটে উত্থান-পতনের বাংলাদেশ আশা জাগিয়েও বারবার ফিরেছে ব্যর্থ মনোরথে। এই ধরুন, শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফির কথা। সেমিফাইনালে কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে টাইগাররা। কিন্তু এবারও আশা জাগিয়ে শিরোপা তুলে দিতে হয় ভারতের কাছে। এরপর ওয়েস্টইন্ডিজ সফরে গিয়ে টেস্টে নাস্তানাবুদ হলেও বাংলাদেশ জিতেছে ওয়ানডে সিরিজ। এবার সেই জয়ের স্মৃতি নিয়েই ১৪তম এশিয়া কাপ খেলতে আরব আমিরাতে পা রেখেছে স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। আজ বিকেল ৫টা ৩০ মিনিটে দুবাইতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

প্রতিপক্ষ যখন শ্রীলঙ্কা তখন বাংলাদেশের সামনে বারবার ঘুরেফিরে এসেছে নিদাহাস ট্রফির বিতর্কটা। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম সেদিন জন্ম দিয়েছিল এক ক্রিকেটীয় বিতর্কের। আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের কারণে ব্যাটিংয়ে থাকা মাহমুদউল্লাহ ও রুবেল হোসেনকে বের হয়ে আসতে নির্দেশ দেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। পরে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচটিতে শেষ বলে ছক্কা হাকিয়ে বাংলাদেশকে ফাইনালে তোলেন মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার বিতর্কটা শুরু ২০১৭ সাল থেকে। দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষে হুট করে পদত্যাগ করে বসেন বাংলাদেশের সাবেক কোচ হাথুরুসিংহে। তারপর দায়িত্ব নেন নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার।

এশিয়া কাপে সবচেয়ে সফল দলের একটি শ্রীলঙ্কা। ১৪টি আসরের মধ্যে ১১ বার ফাইনাল খেলেছে তারা। তারমধ্যে শিরোপা ঘরে তুলেছে মোট পাঁচটি। শেষটি জিতেছে ২০১৪ সালে। এ ছাড়া ব্যক্তিগত অর্জনেও অন্য ৫ দলের চেয়ে যোজন দূরত্বে লঙ্কানরা। সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের শীর্ষে আছেন মাতারা হারিকেন খ্যাত সনাৎ জয়াসুরিয়া। সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির শীর্ষে আছেন সর্বকালের সেরা স্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন। তবে নিজেদের সেই সোনালি ঐতিহ্য এখন অতীত তাদের। কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়াবর্ধনে এবং তিলকারতেœ দিলশানের অবসরের পর অনেকটা আন্ডারডগে পরিণত হয়েছে লঙ্কানবাহিনী। তবে এখনো ম্যাচ জয়ের ক্ষমতা রাখেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও উপুল থারাঙ্গার মতো ব্যাটসম্যানরা। তবে লঙ্কানদের জন্য দুঃসংবাদ হচ্ছে এশিয়া কাপে খেলতে পারছেন দীনেশ চান্দিমাল এবং দানুষ্কা গুনাথিলাকা।

অন্যদিকে ওয়েস্টইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জয় করে ফিরেছে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল-মুশফিকুর রহিম-সাকিব আল হাসানরা আছেন সেরা ফর্মে। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার পক্ষে টাইগাররা।

 

মুখোমুখি

জয় হার পরি.

বাংলাদেশ ৬ ৩৬ ২

শ্রীলঙ্গা ৩৬ ৬ ২

"