সিলভার সিটিতে যাওয়ার নেপথ্যে

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

২০১০ সালের জুলাইয়ে স্প্যানিশ ক্লাব ভ্যালেন্সিয়া থেকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিয়েছিলেন ডেভিড সিলভা। সময়টাতে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার আগ্রহের কেন্দ্রে ছিলেন তিনি। কিন্তু ফর্মে থাকা সিলভা শেষ পর্যন্ত বেছে নেন ম্যানসিটিকে। ৮ বছর আগে ইতিহাদে আসাকে জীবনের সেরা সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন স্প্যানিশ এ তারকা মিডফিল্ডার।

সম্প্রতি প্রিমিয়ার লিগের শোতে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে সিলভা বলেন, ‘সিটিজেনরা আমাকে চেয়েছিল। তারা আমার সঙ্গে ডিসেম্বর থেকেই যোগাযোগ করছিল। আমাকে ক্লাবে এসে খেলার কথা জানিয়েছিল। আমি মনে করলাম সিটি আমাকে চাচ্ছে, আমি সেখানেই যাব।’

নিজের পছন্দ ছাড়াও সিটিতে আসার আরো একটি ব্যক্তিগত কারণ জানিয়েছেন সিলভা। স্প্যানিশ এ তারকা বলেন, ‘আমি আমার মা-বাবার সঙ্গে থাকতাম। ওই সময় তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। তাই স্পেন ছেড়ে দূরে কোথাও যাওয়ার জন্য সেটা আমার উপযুক্ত সময় ছিল। এখন বুঝতে পারছি আমার সিটিতে আসার সিদ্ধান্তটা সঠিক ছিল। সিটিতে যাওয়া ছিল আমার জীবনের সেরা সিদ্ধান্ত।’

ম্যানসিটিকে ৩টি লিগ শিরোপা জেতাতে ভূমিকা রেখেছেন সিলভা। তবে ২০১১ সালে এফএ কাপের শিরোপাই ক্যারিয়ারে ম্যানসিটির হয়ে সেরা সাফল্য বলে বিবেচনা করেন তিনি। ৮ বছরে সিটির হয়ে ২৫২ ম্যাচে ৪৯টি গোল করেছেন সিলভা। ২০১০ সালে স্পেনের জার্সিতে জিতেছেন বিশ্বকাপ। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপের পরপরই জাতীয় দলকে বিদায় জানান এই ৩২ বছর বয়সী স্প্যানিশ।

"