সুখবর পেল হংকং

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

কয়েক দিন বাদে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবে এশিয়া কাপের ১৪তম আসর। টুর্নামেন্টে অংশ নিতে কাল ঢাকা ছেড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। পর পর দুই আসরে ফাইনালে হেরে যাওয়া টাইগারদের লক্ষ্য এবার চ্যাম্পিয়নশিপ। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান সরাসরি এশিয়া কাপের টিকিট পেয়েছে। ষষ্ঠ দল হিসেবে এশিয়া কাপের টিকিট নিশ্চিত করেছে হংকং। কিন্তু সেই দলটা এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে পায়নি ওয়ানডের স্বীকৃতি। এশিয়া কাপের এবারের আসরও ফিরছে ওয়ানডে ফরমেটে। ওয়ানডে মর্যাদা না থাকায় স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে- এই ম্যাচ দুটিতে হংকংয়ের মূল্যায়ন কেমন হবে তা নিয়ে।

কাল এ প্রশ্নের উত্তরটা খোলাসা করল বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি। সংস্থাটি থেকে জানানো হয় হংকংয়ের সঙ্গে ভারত-পাকিস্তানের দুটি ম্যাচকেই দেওয়া হবে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচের মর্যাদা। এর আগে ২০০৪ ও ২০০৮ সালে দুটি আসরে হংকং অংশগ্রহণ করেছিল। এশিয়া কাপের দুটি আসরই ওয়ানডে ফরম্যাটে হয়েছিল। সেই আসরে পাকিস্তান ও বংলাদেশ এবং ভারত ও পাকিস্তানের কাছে হেরেছিল হংকং। আগামী বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে নেপালের কাছে বাজেভাবে হেরে ওয়ানডে মর্যাদা হারায় হংকং।

ভারতীয় ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘হংকং বনাম পাকিস্তান এবং হংকং বনাম ভারতের দুটি ম্যাচকে আন্তর্জাতিক মর্যাদা দেওয়া উচিত। এ নিয়ে আমরাও আইসিসিয়ের সঙ্গে একমত। এর আগেও নারী এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে ভারত-থাইল্যান্ড ম্যাচটিকে আন্তর্জাতিক মর্যাদা দেওয়া হয়নি। কিন্তু আমরা ধরে নিলাম সেটা ভিন্ন ছিল।’

এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) থেকেও জানানো হয়েছে এবারের এশিয়া কাপে সব ম্যাচই ওয়ানডে মর্যাদা পাবে। এর আগে হংকং ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ খেলেছিল। ওয়ানডে মর্যাদা না থাকায় ওই দুই ম্যাচকে ‘লিস্ট-এ’ ম্যাচ হিসেবে মূল্যায়ন করা হয়েছিল। এবার অবশ্য অবমূল্যায়ন করা হচ্ছে না হংকংকে।

"