‘ভালো লাগছে, এই তো!’

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

শেষ মুহূর্তে জাতীয় দলে ডাক পাওয়া মুমিনুল হক সৌরভের জন্য নতুন কিছু নয়। এবারও এশিয়া কাপের আগ মুহূর্তে সেই অভিজ্ঞতা হলো বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের। কিন্তু এভাবে জাতীয় দলে ফিরতে চাননি মুমিনুল। স্বাভাবিকভাবেই খুশি নন তিনি।

মুমিনুল হকের ক্যারিয়ারেও এমন ঘটনা বেশ কবার ঘটল। গত বছর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে বাদ পড়েও নাটকীয়ভাবে আবার সুযোগ পেলেন। এবার এশিয়া কাপের দলেও ছিলেন না। নাজমুল হোসেন শান্তর চোটে সুযোগ পেয়েছেন, তা বলা যাবে না। নাজমুলকে রেখেই মুমিনুলকে দলে যোগ করা হয়েছে ১৬তম সদস্য হিসেবে। সাকিব আল হাসানের ফিটনেস নিয়ে নানা আলোচনা, হঠাৎ তামিমের হাতে চোট আর সর্বশেষ নাজমুলÑ তিন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের চোট টিম ম্যানেজমেন্ট, নির্বাচকদের বাধ্য করেছে মুমিনুলকে দলে রাখতে।

চোটে না পড়ার ঘটনা না ঘটলে মুমিনুলের হয়তো সুযোগ মিলত না। অথচ, ক’দিন আগে শেষ হওয়া বাংলাদেশ ‘এ’ দলের আয়ারল্যান্ড সফরে সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়েছে তার ব্যাটিং। ৫ ম্যাচে ৭৪.২৫ গড়ে ১০০ স্ট্রাইক রেটে ২৯৭ রান করে ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান তিনিই। দুর্দান্ত এ পারফরম্যান্সের পরও মুমিনুল শুরুতে বিবেচিত হননি এশিয়া কাপের বাংলাদেশ দলে। অবশেষ যখন সুযোগ মিলল, তা নিয়েও বিশেষ কোনো অনুভূতি নেই তার, ‘ভালো লাগছে, এই তো! সামনে বড় টুর্নামেন্ট, ভালো করতে পারলে, দলের জন্য কিছু করতে পারলে অনেক বড় অর্জন হবে আমার জন্য।’

টুর্নামেন্টে ব্যক্তিগত লক্ষ্য কী, প্রশ্নটা মুমিনুলকে করাটা অনুচিত। দলে সুযোগ পেতেই যাকে বিস্তর কাঠখড় পোহাতে হচ্ছে, একাদশে সুযোগ পাওয়া নিশ্চয়ই আরও কঠিন হবে। ‘যদি’, ‘কিন্তু’ ধরে তাকে তাই লক্ষ্যের কথা বলতে হচ্ছে তাকে। আর সেটির সারমর্ম, ‘দলের জন্য অবদান রাখা।’ মুমিনুল তৈরি যেকোনো পজিশনেই ব্যাটিং করতে। সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৫ বিশ্বকাপে। লম্বা বিরতিতে এই সংস্করণে ফিরে ভালো করার আত্মবিশ্বাস খুঁজে পাচ্ছেন সর্বশেষ আয়ারল্যান্ড সফর থেকে। ‘এ’ দলের হয়ে আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে খেলা ১৮২ রানের ইনিংস আলোচনায় নিয়ে এসেছে বাঁহাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানকে। শুধু আলোচনায় আনেনি, তিনি বলছেন, ইনিংসটা অনেক কিছু শিখিয়েছে তাকে।

"