অঘটনের শিকার টটেনহাম

স্বস্তির জয়ে ফিরল ইউনাইটেড

প্রকাশ : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের মৌসুমের শুরুতে টানা দুই ম্যাচ হেরে ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। অবশেষে স্বস্তি ফিরেছে রেড ডেভিলস শিবিরে। প্রাথমিক ধাক্কা কাটিয়ে দাপুটে জয়ে ফিরে এসেছে হোসে মরিনহোর দল। পরশু বার্নলির মাঠ থেকে ২-০ গোলের জয় নিয়ে ঘরে ফিরেছে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। অতিথিদের এই জয়ের নায়ক রোমেলু লুকাকু। এদিন টার্ফ মুর স্টেডিয়ামে ম্যাচের দুটি গোলই করেছেন বেলজিয়ান স্ট্রাইকার। এই জয়ে কার্যত পয়েন্ট টেবিলের ১০ নাম্বারে উঠে এসেছে ইউনাইটেড।

ইউনাইটেডের প্রত্যাবর্তনের রাতে অঘটনের শিকার হয়েছে তিন ম্যাচ জিতে উড়তে থাকা টটেনহাম হটস্পার। অথচ আগের ম্যাচে ইউনাইটেডকেই তারা লজ্জায় ডুবিয়েছিল ৩ গোল দিয়ে। কিন্তু এই মৌসুমে দুর্দান্ত ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে উল্টো ২-১ গোলের লজ্জাজনক হার বরণ করতে হয়েছে স্পার্সদের।

প্রথম ম্যাচে জয়। এরপর ব্রাইটন ও টটেনহামের বিপক্ষে হার। তার মধ্যে স্পার্সদের বিপক্ষে ঘরের মাঠেই বড় পরাজয় দেখতে হয়েছে ইউনাইটেডকে। এমন বাজে শুরুর পর গত কয়েকদিন সমালোচনা সামাল দিতে হয়েছে মরিনহোকে। তবে এই দিনটি ছিল শুধুই ‘স্পেশাল ওয়ান’ কোচের। যে মরিনহো গত সপ্তাহে পরাজয়ের পর রাগে সংবাদ সম্মেলন ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন পরশু তার মুখে ছিল হাসি। জয় যে পরিস্থিতি কতটুকু পাল্টাতে পারে তাই দেখালেন মরিনহো। সঙ্গে খোঁচাটাও দিয়েছেন স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে, ‘এই ফলাফলে আমি আনন্দিত। কিন্তু আমার মনে হয় আপনারা কেউ কেউ হতাশ হয়েছেন। এটা ভালো হতো যদি আমরা হেরে যেতাম।’

দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি মিস না করলে গোল সংখ্যাটা বাড়িয়ে নিতে পারত ইউনাইটেড। কিন্তু ফরাসি মিডফিল্ডারের পেনাল্টিটি ঠেকিয়ে দেন সাবেক ম্যানসিটি গোলরক্ষক জো হার্ট।

টটেনহাম-ওয়াটফোর্ড ম্যাচের তিনটি গোলই করেছে এক দলের তিনজনের পা থেকে। পুরো ম্যাচে আধিপত্য নিয়ে খেলতে থাকা টটেনহাম ৫৩ মিনিটে এগিয়েও যায় ওয়ার্টফোর্ডের ভুলে। ডকৌর আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ার পরই জেগে উঠে স্বাগতিকরা। ৬৯ মিনিটে ট্রয় ডিনের গোলে সমতায় ফিরে ওয়াটফোর্ড। ৭৬ মিনিটে মাউরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যদের অবাক করে ব্যবধানটা বাড়িয়ে দেন ক্রেইগ কাথচার্ট। এই গোলেই মৌসুমের প্রথম হার নিশ্চিত হয়ে যায় টটেনহামের।

"