ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

ঐতিহ্য ও গৌরবের লড়াই

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ইউরোপের সেরা পাঁচ লিগের মধ্যে অন্যতম ধরা হয় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগকে। ঐতিহ্য, ইতিহাস, তারকা ও দলীয় প্রতিযোগিতা মিলিয়ে অন্যান্য লিগ থেকে ঢের এগিয়ে প্রিমিয়ার লিগ। অন্যান্য লিগে যেখানে থাকে মাত্র দুই বা তিনটি বড় দল, সেখানে প্রিমিয়ার লিগে প্রায় প্রতিটি ক্লাবেরই রয়েছে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ক্ষমতা। তবে প্রতি মৌসুমে চোখ থাকে ৬ থেকে ৭টি ক্লাবের ওপর। কিন্তু পয়েন্ট টেবিলের তলানির ক্লাবটিও মাঝে মধ্যে ফুঁসে উঠে অঘটন ঘটিয়ে দেয় যেকোনো মুহূর্তে। ২০১৫-১৬ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেই কাজটি করে দেখিয়েছিল লিস্টার সিটি।

২০টি দল, ৩৬০ ম্যাচ ও একটি শিরোপা। বাংলাদেশ সময় ১১ আগস্ট রাত ১টা থেকে শুরু হয়ে গেছে সেই ঐতিহাসিক শিরোপার লড়াই। প্রথম ম্যাচেই ওল্ড ট্রাফোর্ডে প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে সফল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড মুখোমুখি হয়েছে লিস্টার সিটির বিপক্ষে। তা ছাড়া একইদিনে লড়াই করবে আরো ১০টি ক্লাব।

গত মৌসুমে ১০০ পয়েন্টের মাইলফলক স্পর্শ করে শিরোপা জিতেছে ম্যানচেস্টার সিটি। এবারও শিরোপা ধরে রাখার দিকে মনোযোগ দিচ্ছে দ্য সিটিজেন কোচ পেপ গার্দিওলা। একমাত্র যে কাজটি করতে পেরেছিলেন ইউনাইটেড কিংবদন্তি স্যার আলেক্স ফার্গুসন। অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে থেকে মিশন শেষ করেছিল তাদের নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ইউনাইটেড। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে ছিল যথাক্রমে টটেনহাম হটস্পার্স ও লিভারপুল। তবে এবার প্রথম থেকেই প্রতিযোগিতাটা যে জমে উঠবে সে আভাস দিচ্ছেন ক্লাবগুলো। কারণ এরই মধ্যে রেকর্ডের খাতা খুলে গ্রীষ্মকালীন দল বদলের বাজারে খেলোয়াড় কিনেছে দলগুলো।

খেলোয়াড় কেনার দিকে এবার সবচেয়ে এগিয়ে আছে লিভারপুল। এরই মধ্যে তারা অ্যানফিল্ডে নিয়ে এসেছে জেরদান শাকিরি, ভার্জিল ফন ডাইজিক, নেবি কেইটা, ফাবিনহার মতো খেলোয়াড়দের। ৬৭ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে রোমা থেকে ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক অ্যালিসনকে নিয়ে এসে একটি রেকর্ডও করেছিল ক্লাবটি। কিন্তু সেই রেকর্ডের স্থায়ীত্ব হয়েছে মাত্র ২০ দিন। গোলরক্ষকদের মধ্যে রেকর্ড ৭২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে অ্যাটলেটিকো বিলবাও থেকে কেপা আরিজাবালাগাকে স্টামফোর্ড ব্রিজে নিয়ে এসে অ্যালিসনের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে চেলসি। তবে চেলসিতে এবার দেখা যাবে না তাদের দীর্ঘদিনের গোলপোস্টের অতন্দ্র প্রহরী থিবো কোর্তোয়াকে। রাশিয়া বিশ্বকাপের সেরা গোলরক্ষক তার নতুন ঠিকানা হিসেবে বেছে নিয়েছেন স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদকে।

নতুন মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে এসেছে কিছু নতুন মুখ। আর পুরাতনরা বিদায় নিয়ে চলে গেছে অন্যত্র। তেমনি এই মৌসুমে আর্সেনালের ডাগআউটে দেখা যাবে না আর্সেন ওয়েঙ্গারকে। দীর্ঘ ২২ বছর পর তার স্থলে দেখা যাবে পিএসজির সাবেক কোচ উনাই এমেরিকে। অন্যদিকে চেলসিতে আন্তনিও কন্তের জায়গায় দেখা যাবে ইতালিয়ান কোচ মাউরিসিও সারিকে। গত মৌসুমে চেলসি লিগ অভিযান শেষ করেছিল পয়েন্ট টেবিলের ৫ নাম্বার থেকে এবং আর্সেনাল ছিল ৬ নাম্বারে। যার কারণে আগামী চ্যাম্পিয়নস লিগের মৌসুমে দেখা যাবে না দুই ক্লাবকে। তবে অংশগ্রহণ করতে পারবে ইউরোপা লিগে।

১৯৮৮ সাল থেকে শুরু হওয়া ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি অংশগ্রহণকারী ক্লাব হচ্ছে এভারটন। আর সর্বোচ্চ ২০ বার শিরোপা জিতেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ১৮টি শিরোপা জিতে দ্বিতীয় স্থানে আছে লিভারপুল। অলরেডরা শেষবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ১৮৮৯-৯০ মৌসুমে। এরপর থেকে শিরোপা দেখা পায়নি দলটি। এবার কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ সেই অভাবটি ঘোচাতে পারেন কিনা তাই দেখার বিষয়। তবে তার জন্য তাদের লড়াই করতে হবে ইউনাইটেড, ম্যানসিটি, টটেনহাম, আর্সেনাল ও চেলসির মতো ক্লাবগুলোর বিপক্ষে।

 

"