রিয়াল মাদ্রিদে কোর্তোয়া

অ্যালিসনের রেকর্ড ভেঙে চেলসিতে কেপা

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক অ্যালিসনের রেকর্ডটা স্থায়ী হলো মাত্র ২০ দিন। অথচ নতুন মৌসুম শুরুর আগে তার হাতেই ভেঙেছে ১৬ বছরের এক পুরনো রেকর্ড। ১৬ বছর ধরে বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলরক্ষক ছিলেন ইতালি কিংবদন্তি জিয়ানলুইজি বুফন। তবে এই মৌসুমে ট্রান্সফার ফির রেকর্ড ৬৭ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে রোমা থেকে লিভারপুলে যোগ দিয়েছেন অ্যালিসন। তাকে নিয়ে অ্যানফিল্ডে কত রোমাঞ্চ, বিশ্বে কত আলোচনা। কিন্তু তা আর বেশি দিন থাকল কই! কেপা আরিজাবালাগা নামের কোনো এক অখ্যাত গোলরক্ষক ভেঙে দিয়েছেন সব রেকর্ড। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলোয়াড় কেনাবেচার শেষ দিনে অ্যাটলেটিকো বিলবাও থেকে ৭২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে কেপাকে দলে ভিড়িয়েছে চেলসি। কেনা স্টামফোর্ড ব্রিজে এসেছেন ৭ বছরের চুক্তিতে।

চেলসির আসলে কিছুই করার ছিল না। কারণ রাশিয়া বিশ্বকাপের গোল্ডেন গ্লাভসজয়ী থিবো কোর্তোয়া রিয়াল মাদ্রিদে চলে যেতে চাচ্ছিলেন বহু দিন ধরে। স্প্যানিশ জায়ান্টরাও উঠে পড়ে লেগেছিল বেলজিয়ান গোলরক্ষককে দলে ভিড়াতে। অন্য বেলজিয়ান ইডেন হ্যাজার্ডও হয়তো স্টামফোর্ড ছেড়ে নতুন ঠিকানা বানাতে পারেন সান্তিয়াগো বার্নাব্যুকে। তবে ব্লুজদের নতুন কোচ মাউরিজিও সারি খুঁজছিলেন একজন মধ্য মাঠের সারথিকে। অথচ সব ইচ্ছা বাদ দিয়ে কেপাকেই কিনতে হলো চেলসি কোচকে।

চুক্তির মেয়াদ এক বছর বাকি থাকতেই ৩৫ মিলিয়ন ইউরোতে ৬ বছরের চুক্তিতে রিয়াল চলে গেলেন কোর্তোয়া। অথচ কয়েক মৌসুম ধরে তিনি ধারে কাটিয়েছেন রিয়ালের নগরশত্রু অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে। লস ব্লাঙ্কোসদের জার্সিতে মাঠে নামলেই দুউ মাদ্রিদের হয়ে খেলা ৪৫তম খেলোয়াড় তবে কোর্তোয়া। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে খেলার পর থেকেই স্পেনেই আছে কোর্তোয়ার পরিবার। আপাতত কোর্তোয়া চেলসি ছাড়ার একমাত্র কারণ দেখিয়েছেন এটিকে। তবে বেলজিয়ানের গোলরক্ষকের বার্নাব্যুতে আসায় কপাল পুড়তে পারে ব্লাঙ্কোসদের গোলপোস্টের পুরনো প্রহরী কেইলর নাভাসের। কোর্তোয়া এলেও রিয়াল ছাড়ার ছাড়তে রাজি নন বলে জানিয়েছেন কোস্টারিকান গোলরক্ষক। ‘অবশ্যই, আমি জোর দিয়েই বলছি আমি রিয়ালের হয়ে থাকতে চাই।’ গত চার বছরে রিয়ালকে সব বড় সাফল্যই এনে দিয়েছেন নাভাস।

অন্যদিকে চেলসির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে কেপা ক্লাবের ওয়েবসাইটে লিখেছেন, ‘এটা আমার ব্যক্তিগত জীবন এবং আমার ক্যারিয়ারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত।’

কেপা চেলসি টিভিকে আরো বলেন, ‘আমি চেলসি সমর্থকদের বলতে চাই, এই ক্লাবে যোগ দিতে পারে আমি সত্যিই উত্তেজিত। সফল হওয়ার জন্য আমি কঠোর পরিশ্রম করব। চেলসির হয়ে আমি সবকিছু জিততে চাই।’

অ্যাটলেটিকো বিলবাওয়ের যুবদলেই বেড়ে উঠেছেন স্প্যানিশ গোলরক্ষক কেপা। কয়েক মৌসুম বিভিন্ন ক্লাবে ধারে খেলার পর গত দুই মৌসুম ধরে বিলবাওয়ের গোলপোস্ট সামলেছেন তিনি। রাশিয়া বিশ্বকাপে স্পেনের চূড়ান্ত স্কোয়াডেও ছিলেন কেপা। কিন্তু ডেভিড ডি গিয়ার কারণে মাঠে নামতে পারেননি। কেপাকে ছাড়ার বিলবাওয়ের রিলিজ ক্লজটা বেশি নয়, তা এরই মধ্যে প্রমাণ করে দেওয়ারও আশ্বাস দিয়েছেন বিশ্বের সর্বোচ্চ দামি গোলরক্ষক।

"