ইংল্যান্ড-ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ ফ্যাক্টস

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

* ২৮ বছর পর বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। সবশেষ ১৯৯০ সালে তৃতীয় সেমিফাইনাল খেলেছিল ইংলিশরা। তবে ক্রোয়েশিয়ার ফুটবল ইতিহাসে এটা তাদের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে প্রথম ও শেষবার শেষ চারে উঠেছিল ক্রোটরা।

 

* বিশ্বকাপের মঞ্চে এবারই প্রথম মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়া।

 

* শেষ পাঁচবারের দেখায় তিনবার জিতছে ইংল্যান্ড এবং দুইবার জয় পেয়েছে ক্রোয়েশিয়া।

 

* টানা ৯ ম্যাচে অপরাজিত আছে ইংল্যান্ড। অন্যদিকে সাত ম্যাচ ধরে অজেয় আছে ক্রোয়েশিয়া।

 

* এবারের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের গোল করেছে ১১টি, হজম করেছে ৪টি। ক্রোয়েশিয়া গোল করেছে ১০টি এবং হজম করেছে ৪টি গোল।

 

* হ্যারি কেন এবারের আসরে সর্বোচ্চ ৬ গোল করে গোল্ডেন বুট জয়ের দৌড়ে এগিয়ে আছেন। বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ ১০ গোলের রেকর্ড আছে জার্ড মুলারের। ১৯৭০ বিশ্বকাপে পশ্চিম জার্মানির হয়ে রেকর্ড গোল করেছিলেন তিনি।

 

* কেনের সামনে রোনালদো ও মুলারকে ছাড়িয়ে যাওয়ার হাতছানি আছে। ২০০২ বিশ্বকাপে ৮ গোল করেছিলেন ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ফেনোমেনন খ্যাত রোনালদো।

 

* ১৯৭৪ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত কোনো ইউরোপিয়ান খেলোয়াড় এক আসরে ৭ গোল করতে পারেনি। এবার কেনকে হাতছানি দিচ্ছে এই অর্জন।

 

* ইংল্যান্ডের জন্য সেমিফাইনাল একটা অভিশাপের নাম হয়ে উঠেছে। ইউরো ও বিশ্বকাপ মিলিয়ে শেষ তিনটি সেমিফাইনালেই হেরেছে ইংলিশরা (ইউরো ৯৬, বিশ্বকাপ ১৯৯০, ইউরো ৬৮)।

 

* ক্রোয়েশিয়া নকআউট পর্বের দুইটি ম্যাচই পার হয়েছে টাইব্রেকারে। শেষ ষোলোতে ডেনমার্ক এবং কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক রাশিয়াকে হারিয়েছে ক্রোটরা। এর আগে একমাত্র দল হিসেবে দুইটি টাইব্রেকারে জিতেছিল আর্জেন্টিনা (১৯৯০ বিশ্বকাপ)।

 

* এই বিশ্বকাপে আটজন ভিন্ন ফুটবলার ক্রোয়েশিয়ার হয়ে গোল করেছেন। অন্যদিকে বেলজিয়ামের হয়ে ভিন্ন খেলোয়াড় খুঁজে নিয়েছেন জালের ঠিকানা।

"