বিদায় ইনিয়েস্তা বিদায় তোরেস

প্রকাশ : ২২ মে ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

মৌসুম শেষে বার্সেলোনা ছাড়ার ঘোষণাটা আগেই দিয়েছিলেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা। ন্যু ক্যাম্পে বার্সার জার্সিতে শেষ ম্যাচটা খেলে ফেললেন ‘দ্যা ইল্যুশনিস্ট’। বিদায়ী ম্যাচে ইনিয়েস্তাকে জয় উপহার দিয়েছেন সতীর্থরা। আরেকটু ছোট করে বললে ফিলিপ্পে কুতিনহো। পরশু ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের একমাত্র গোলে রিয়াল সোসিয়েদাদকে হারিয়ে জয় দিয়ে মৌসুম শেষ করল এরনেস্তো ভালভার্দের দল। এই জয়ে ৯৩ পয়েন্ট নিয়ে মৌসুম শেষ হলো বার্সার। ৭৯ পয়েন্ট নিয়ে লিগ রানার্সআপ হয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। আর গত আসরের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ তৃতীয় হয়ে মৌসুম শেষ করেছে। ৩৮ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৭৬।

পরশু রাতটা বিদায়ের উপলক্ষ হয়ে এসেছিল ফার্নান্দো তোরেসের জন্যও। ইনিয়েস্তার বিদায়ী রাউন্ডে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটি খেলে ফেলেছেন স্প্যানিশ এই কিংবদন্তি। শেষ ম্যাচটাও রাঙিয়ে নিয়েছেন তোরেস। করেছেন জোড়া গোল। তবু দলের কাছ থেকে বিদায়ী অর্ঘ্যটা পাননি তিনি। এইবার ২-২ গোলে রুখে দিয়েছে দল অ্যাটলেটিকোকে।

১৬ বছর আগে বার্সেলোনার জার্সিতে পেশাদার ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ইনিয়েস্তা। পরশু তার সেই ট্রেডমার্ক ‘৮’ নাম্বার জার্সিটা তুলে রাখলেন চিরতরের জন্য। ম্যাচের ৮২ মিনিটের সময় লিওনেল মেসিকে আর্মব্যান্ড পরিয়ে দিয়ে মাঠ ছাড়ার সময় আবেগাপ্লুত হয়ে পড়লেন ইনিয়েস্তা। প্রিয় খেলোয়াড়কে বিদায় জানাতে গিয়ে কাঁদলেন ন্যু ক্যাম্পের হাজার হাজার দর্শক।

কার্লোস পুয়োল হয়ে জাভি হার্নান্দেজ। জাভি থেকে ইনিয়েস্তা। ইনিয়েস্তা থেকে মেসি। এ যেন বার্সা খেলোয়াড়দের পাসিং ফুটবলের সৌন্দর্য। ঠিক তেমনি দলের দায়িত্বটা এক কিংবদন্তি থেকে আরেক কিংবদন্তি ঘুরে চলে এলো মেসির হাতে। মেসিকে দলের দায়িত্ব তুলে দেওয়ার আগে ৩৪ বছর বয়েসী ইনিয়েস্তা বার্সার হয়ে জিতেছেন ২২টি শিরোপা।

ইনিয়েস্তা বার্সায় এসেছিলেন ২২ বছর আগে। যুবদল থেকে পরবর্তী সময়ে যোগ দিয়েছিলেন মূল দলে। সোসিয়েদাদ ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে ‘ইল্যুসনিস্ট’ বললেন, ‘বিদায় বলাটা খুবই কঠিন কারণ আমি এখানে অবিশ্বাস্য ২২টা বছর কাটিয়েছি। এটা সত্যি গর্ব ও আনন্দের যে, আমি বার্সার হয়ে খেলতে পেরেছি। যা আমাকে বিশ্বের অন্যতম ফুটবলার বানিয়েছে।’

লা লিগার ২৫তম শিরোপা পাঁচ ম্যাচ হাতে রেখেই নিশ্চিত করেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগটা ৩৭তম রাউন্ডে এসে হারিয়েছে কাতালান ক্লাবটি। লেভান্তের কাছে হেরে অঘটনের শিকার হয়েছিল বার্সা। লিগের শেষ ম্যাচে জয় দিয়ে ঠিকই ঘুরে দাঁড়াল ভালভার্দের দল।

লিওনেল মেসি ছাড়া শেষ ম্যাচে পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে মাঠে নেমেছিল বার্সেলোনা। ২৫ মিনিটে এগিয়ে সম্ভাব্য সেরা এবং প্রথম সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। কিন্তু উসমান ডেম্বেলের পাস থেকে গোল করতে ব্যর্থ হোন কুতিনহো। দ্বিতীয়ার্ধে নেমে আর এই ভুলটা করেননি ব্রাজিলিয়ান তারকা। ৫৭ মিনিটে লুইস সুয়ারেজের পাস থেকে সোসিয়েদাদের জালে বল জড়ান কুতিনহো। এই গোলটার আর শোধ দিতে পারেনি অতিথি দলটি।

কুতিনহো গত ম্যাচেও বার্সার হয়েও গোল পেয়েছিলেন। লেভান্তের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক গোল করার পরও তার দল পেয়েছিল মৌসুমের প্রথম হার। ইনিয়েস্তা চলে যাওয়ায় এখন থেকে মাঝমাঠের দায়িত্বটা থাকবে কুতিনহোর ওপর। টানা দুই ম্যাচে গোল করে বুঝিয়ে দিলেন, ইনিয়েস্তার যোগ্য উত্তরসূরি তিনি।

 

বার্সেলোনা ১ ০ সোসিয়েদাদ

অ্যাট. মাদ্রিদ ২ ২ এইবার

"