মেজাজ হারিয়ে অনুতপ্ত বাংলাদেশ অধিনায়ক

প্রকাশ : ১৮ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসতে আসতে সময় লাগল অনেকটা। ততক্ষণে নিজেকে সামলে নিয়েছেন অনেকটা। একটু আগে যে অবয়বে ছিল ক্ষোভের আগুন, সেখানেই তখন খুশির আভা। সাকিব আল হাসান নিজেই বলছেন, শেষ ওভারের উত্তেজনায় নিজেকে সামলানো উচিত ছিল তার।

শেষ ওভারে ‘নো’ বল ডেকেও যখন তুলে নিলেন আম্পায়ার, মাঠের ভেতের তখন প্রতিবাদ করছিলেন মাহমুদউল্লাহ, আর মাঠের বাইরে ক্ষোভে ফেটে পড়ছলেন সাকিব। চতুর্থ আম্পায়ার বারবার থামাতে চেষ্টা করেন সাকিবকে। এক পর্যায়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক ক্ষুব্ধ হয়ে মাঠের দুই ব্যাটসম্যানকে উঠে আসতে বলেন। শেষ পর্যন্ত ম্যানেজার খালেদ মাহমুদের হস্তক্ষেপে আবার শুরু হয় খেলা। মাহমুদউল্লাহর অসাধারণ ইনিংস ফাইনালে তোলে বাংলাদেশকে। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে নিজের দায়টুকু মেনে নিলেন সাকিব, ‘মাঠে অনেক কিছুই হয়েছে যেটা উচিত হয়নি। প্রথমে বলব, অবশ্যই আমার শান্ত থাকা উচিত ছিল। একটু বেশিই উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলাম হয়তো। আবেগ ও উত্তেজনা মিলিয়ে ওরকম হয়ে গেছে। আমি জানি কিভাবে আচরণ করতে হয়। পরের বার থেকে অবশ্যই আরও সতর্ক থাকব।’

ওই ঘটনার সময় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে মাঠের অন্য ক্রিকেটারদের মধ্যেও। বারবারই মুখোমুখি হয়ে পড়েছেন দুই দলের ক্রিকেটাররা। তেড়ে গেছেন পরস্পরের দিকে।

তবে সাকিবের বিশ্বাস, মাঠের এসব ঘটনা পড়ে থাকবে মাঠেই। লঙ্কানদের সঙ্গে সম্পর্কে প্রভাব পড়বে না কোনো, ‘মাঠের ভেতরের জিনিস, কখনোই মাঠের বাইরে আসা উচিত নয়। আমরা এমনিতে খুব ভালো বন্ধু। শুধু ক্রিকেটার নয়, দুই দেশের বোর্ড, দুই দেশ, সবাই সবাইকে সাহায্য করে। শ্রীলঙ্কার অনেক ক্রিকেটার আমাদের বিপিএল খেলে, ঢাকা লিগে খেল। ওদের সবার সঙ্গেই ভালো সম্পর্ক আমাদের। তবে মাঠে আমার দলকে জেতানোর জন্য যে কোনো কিছুই করতে রাজি থাকব আমি। ওরাও চাইবে। সেটাই হয়েছে। আমি নিশ্চিত যে দুই দলই এটা এভাবেই নেবে।’

তবে ম্যাচের অমন পরিস্থিতিতে সাকিবের এমন উত্তেজিত হয়ে যাওয়াটা ঠিক হয়নি বলে মনে করছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

"