মেসিপুত্রকে জয় উৎসর্গ

প্রকাশ : ১২ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

তৃতীয় সন্তানের মুখ দেখতে লিওনেল মেসি এখন আর্জেন্টিনায়। প্রাণভোমরাকে ছাড়া এই মৌসুমে প্রথমবারের মতো মাঠে নামল বার্সেলোনা। কিন্তু প্রাণভোমরার অভাবটা বুঝতে দেননি সুয়ারেজ-কুতিনহো-ডেম্বেলেরা। মালাগাকে তাদেরই মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে কাতালান ক্লাবটি। দারুণ জয়টা আবার সদ্যভূমিষ্ঠ মেসিপুত্রকে উৎসর্গ করেছে বার্সা।

মাঠে নামার আগেই সুখবরটা পেয়েছিলেন বুসকেটস-পাওলিনহোরা। সতীর্থের খুশির রাতে বার্সাও আনন্দটাকে পূর্ণতা দিয়েছে। অথচ এমন ম্যানে ছিলেন না আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাও। চেলসি মহারণ আসন্ন রেখে তাকে বিশ্রাম দিয়েছিলেন কোচ এরনেস্তো ভালভার্দে। তবু বার্সার সঙ্গে ন্যূনতম লড়াইটুকু করতে পারল না মালাগা। উল্টো ম্যাচের ত্রিশ মিনিটের মধ্যে ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছে স্বাগতিক দলটি।

ম্যাচের ১৩ মিনিটের হেডে গোল কাতালানদের এগিয়ে দেন লুইস সুয়ারেজ। ২৮ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফিলিপ্পে কুতিনহো ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। দুই মিনিটের ব্যবধানে আরো বড় ধাক্কা খায় মালাগা। সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ফরওয়ার্ড স্যামুয়েল গার্সিয়া সানচেজ। কিন্তু দশ জনে পরিণত হওয়ার ফায়দাটা তুলতে পারেনি বার্সা। তাই দুই গোলের জয় নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হলো তাদের। এই জয়ে লিগ শিরোপার আরো কাছাকাছি চলে এলো বার্সেলোনা। ২৮ ম্যাচে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে ভালভার্দের শিষ্যরা এখন ধরাছোঁয়ার বাইরে।

তবে গোল না করেও ম্যাচের নায়কের চরিত্রটা পেয়েছেন উসমান ডেম্বেলে। তাকে কেন ১৪৭ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে বার্সা দলে টেনেছে সেটা পরশু একবার বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি। ভালভার্দের দলে এক প্রকার অপাঙক্তেয় হয়ে পড়ার জবাব দিয়েছেন পরশু সুযোগ পাওয়ার পর। তাতে মুগ্ধ দলের কোচ, সতীর্থ এবং সমর্থকরা। বার্সায় যোগ দেওয়ার বয়স ছয় মাস হলেও ইনজুরি নিয়ে চার মাস তাকে থাকতে হয়েছে মাঠের বাইরে।

কিন্তু মেসি-ইনিয়েস্তার অনুপস্থিতির কারণে প্রথমবারের মতো শুরুর একাদশে নামলেন ডেম্বেলে-কুতিনহো। সুযোগ পেয়েই সামনে থেকে খেলায় নেতৃত্ব দিয়েছেন ডেম্বলে। লিভারপুল ছেড়ে বার্সায় আসা কুতিনহো গোল পেলেও ম্যাচের স্পটলাইটস ছিল ডেম্বেলের ওপর। তাই তো ম্যাচ শেষে বার্সা কোচ ভালভার্দের কণ্ঠে ঝরে পড়ল প্রশংসাবাণী। সংবাদ সম্মলনে এসে তিনি বললেন, ‘ডেম্বেলের সবচেয়ে শক্তিশালী দিক হলো, সে সবসময় চেষ্টা করে। বার্সায় তার ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল। তবে তার কিছু সময় দরকার নিজেকে মেলে ধরার জন্য। এখনো সে তরুণ। তার মধ্যে একটা গুরুতর চোট কাটিয়ে উঠেছে। সামনে সে নিজেকে প্রমাণ করবে আরো।’

বার্সা-মেসির আনন্দের রাতে জয় পেয়েছে চিরশত্রু রিয়াল মাদ্রিদ। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জোড়া গোলে এইবারকে তারা হারিয়েছে ২-১ ব্যবধানে। এই মুহূর্তে রিয়ালের সবচেয়ে সুখের সংবাদ হচ্ছে রোনালদোর গোলে থাকা। মাঠে নামলেই গোল পাচ্ছেন পর্তুগিজ উইঙ্গার। চ্যাম্পিয়ন লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের এই ফর্মে থাকতে চায় রোনালদো। বার্সার সমান ম্যাচ খেলে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে জিনেদিন জিদানের দল রয়েছে তিন নাম্বার স্থানে।

"