জনির ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের সিরিজ জয়

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন জনি বেয়ারস্টো। পেলেন দুই রকমের স্বাদ। আগের ম্যাচে হেরেছিল ইংল্যান্ড। এবার তার ঝড়ো সেঞ্চুরিতে উড়ে গেল নিউজিল্যান্ড। তাতে পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে সহজেই ৭ উইকেটে জিতেছে ইংল্যান্ড। কিউইদের ২২৩ রানে গুটিয়ে দেওয়ার পর ১০৪ বল বাকি থাকতে দারুণ জয় তুলে নেয় ইয়ন মরগানের দল। এই জয়ের ফলে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিল সফরকারী ইংল্যান্ড। ওয়ানডেতে এনিয়ে টানা ছয়টি সিরিজ জিতল ইংলিশরা।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে কাল টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি নিউজিল্যান্ডের। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে শূন্য রানে ফেরেন কলিন মুনরো। মার্ক উড দ্রুত ফেরান অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে। ম্যাচের আগে বড় একটা ধাক্কা খায় নিউজিল্যান্ড। চোটের জন্য ছিটকে যান আগের তিন ম্যাচে দুটি সেঞ্চুরি করা মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান রস টেলর। তার জায়গায় খেলতে নেমে শূন্য রানে ফিরেন মার্ক চ্যাপম্যান।

স্বাগতিকদের মিডল অর্ডারে ছোবল দেন দুই ইংলিশ স্পিনার আদিল রশিদ ও মইন আলি। ৯৩ রানে ছয় উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে নিউ জিল্যান্ড। মিচেল স্যান্টনারের সঙ্গে ৮৪ রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়া হেনরি নিকোলস ফিরে ৫০ রান করে। ক্যারিয়ার সেরা ৬৭ রান করে বিদায় নেন স্যান্টনার। তাদের দুই ফিফটিতে ২২৩ পর্যন্ত যায় কিউরা। ৩২ রানে ৩ উইকেট নেন ক্রিস ওকস। সিরিজ জুড়ে ভালো বোলিং করা এই পেসার জেতেন সিরিজ সেরার পুরস্কার। লেগ স্পিনার রশিদ ৩ উইকেট নেন ৪২ রানে।

জেসন রয়ের চোটে দলে ফেরা অ্যালেক্স হেলসের সঙ্গে ২০.২ ওভার স্থায়ী ১৫৫ রানের জুটিতে দলকে দুর্দান্ত শুরু এনে দেন বেয়ারস্টো। ম্যাচ হাতের মুঠোয় নিয়ে এসে ফেরেন এই ওপেনার। ৩৮ বলে ৫০ ছোঁয়া ম্যাচসেরা বেয়ারস্টো তিন অঙ্কে যান ৫৮ বলে। চতুর্থ সেঞ্চুরি পাওয়া ওপেনার শেষ পর্যন্ত ফেরেন ৬০ বলে ৬টি ছক্কা ও ৯টি চারে ১০৪ রান করে। এটি তার ওয়াডে ক্যারিয়ারে চতুর্থ সেঞ্চুরি। এ ছাড়া ৭৪ বলে ৯টি চারে ৬১ রান করা হেলসকে ফেরান স্যান্টনার। মরগানকে দ্রুত বিদায় করেন ইশ সোধি। বেন স্টোক্সকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন জো রুট।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর

নিউজিল্যান্ড : ৪৯.৫ ওভার, ২২৩: (গাপটিল ৪৭, মুনরো ০, উইলিয়ামসন ১৪, ল্যাথাম ১০, চ্যাপম্যান ০, নিকোলস ৫৫, ডি গ্র্যান্ডহোম ৬, স্যান্টনার ৬৭, সাউদি ১০, সোধি ৫, বোল্ট ২*; ওকস ৩/৩২, উড ১/২৬, স্টোক্স ০/২৩, রশিদ ৩/৪২, মইন ১/৩৯, রুট ০/১৫, কারান ২/৪৬)

ইংল্যান্ড : ৩২.৪ ওভার, ২২৯/৩ (বেয়ারস্টো ১০৪, হেলস ৬১, রুট ২৩*, মর্গ্যান ৮, স্টোকস ২৬*; সাউদি ০/২০, বোল্ট ১/৫০, ডি গ্র্যান্ডহোম ০/৩৩, স্যান্টনার ১/৪৪, সোধি ১/৭৮)

ফল : ইংল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী

সিরিজ : ইংল্যান্ড ৩-২ ব্যবধানে জয়ী

ম্যাচ সেরা : জনি বেয়ারস্টো

সিরিজ সেরা : ক্রিস ওকস

"