রাশিয়ার নিষেধাজ্ঞা বহাল

পর্দা উঠল শীতকালীন অলিম্পিকের

প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

কাল থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচ্যাংয়ে বসেছে শীতকালীন অলিম্পিকের ২৩তম আসর। জমকালো আয়োজন আর রঙের ছড়াছড়িতে হয়ে গেছে বর্ণাঢ্য উদ্বাধনী অনুষ্ঠান। শুক্রবার রাতে আসরের উদ্বোধন করেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর কোরীয় নেতা কিম জন উন এবং যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। দুই কোরিয়ার ক্রীড়াবিদরা এবার এক পতাকার নিচে মার্চপাস্ট করেন। ২৫ ফেব্রুয়ারি আসরের পর্দা নামবে।

তবে এবারের অলিম্পিকটা দুঃসংবাদ হয়ে এসেছে রাশিয়ার জন্য। দেশটির ৪৭ অ্যাথলেট ও কোচের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখেছেন আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত। ফলে এই ক্রীড়াযজ্ঞে রাশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করতে পারবেন না তারা। কাল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের কয়েক ঘণ্টা আগে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে করা আপিল আবেদন খারিজ করে দেন আদালত। তবে রাশিয়ার বাকি ১৬৯ খেলোয়াড় স্বাধীনভাবে অংশ নিতে পারবেন।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী ভিতালি মুতকো বলেন, ‘বিষয়টা হতাশজনক হলেও আদলতের রায়ের প্রতি সম্মান জানাতেই হবে।’ ভিতালি রাশিয়ার ক্রীড়ামন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন। দায়িত্বে থাকাকালীন তাকে অলিম্পিকে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এর আগে শক্তিবর্ধক ওষুধ নেওয়ার অভিযোগে রাশিয়াকে শীতকালীন অলিম্পিকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। তবে রাশিয়া পাল্টা অভিযোগ করে, আইওসি অন্যায়ভাবে তাদের অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করেছে।

এদিকে, শুক্রবার শীতকালীন অলিম্পিকের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হলেও ইভেন্ট শুরু হয়েছে পরশু থেকে। এবারের অলিম্পিক গেমসে ১৫টি ডিসিপ্লিনে মোট ১০২টি ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। ৯৩টি দেশের তিন হাজার অ্যাথলেট অংশ নিয়েছে চলতি আসরে। শেষ মুহূর্তে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকায় পদক জয়ের লড়াইকে নিশ্চিতভাবেই এগিয়ে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র। অপরদিকে, আসরের আগের দিন সামরিক মহড়া প্রদর্শনী আর প্রতিবেশীদের সঙ্গে সম্পর্কটা বৈরী হওয়ায় উত্তর কোরিয়ার অংশগ্রহণ নিয়ে ছিল ধোঁয়াশা। তবে সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে তারা এক পতাকার প্রতিনিধিত্ব করেছে। এবার ২২ জন অ্যাথলেট পাঠিয়েছে উত্তর কোরিয়া। বিবিসি স্পোর্টস ওয়েবসাইট, বিবিসি রেডিও, বিটি স্পোর্ট, অলিম্পিক চ্যানেলসহ বিশ্বের জনপ্রিয় গণমাধ্যমগুলোতে শীতকালীন অলিম্পিকের ২৩তম আসরটি সরাসরি সম্প্রচার করা হচ্ছে।

"